করোনায় দেশে শিশুমৃত্যুর হার বেড়েছে ১৩ শতাংশ

জাতিসংঘের শিশু তহবিলের (ইউনিসেফ) ‘ডিরেক্ট অ্যান্ড ইনডাইরেক্ট ইফেক্টস অব কভিড-১৯ প্যানডেমিক অ্যান্ড রেসপন্স ইন সাউথ এশিয়া’ শীর্ষক প্রতিবেদনে বলা হয়, করোনাকালে বাংলাদেশে শিশুমৃত্যুর হার বেড়েছে ১৩ শতাংশ। 

প্রতিবেদনে লকডাউনের সময় বিভিন্ন দেশের সরকারের নেয়া কৌশল স্বাস্থ্যসেবা, সমাজসেবা, শিক্ষাব্যবস্থা ও অর্থনীতির ওপর কী ধরনের প্রভাব ফেলেছে, সে বিষয়ে আলোচনা করা হয়েছে। 

ইউনিসেফের ওই প্রতিবেদনে বাংলাদেশ, আফগানিস্তান, নেপাল, ভারত, পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কার মা ও শিশুর স্বাস্থ্যসেবার চিত্রের ওপর বিশেষ দৃষ্টি দেয়া হয়েছে। এই কয়েকটি দেশে ১৮০ কোটি মানুষের বসবাস। মহামারির সময় নারী, শিশু ও সদ্যজাত শিশুর স্বাস্থ্যসেবা মারাত্মকভাবে ব্যাহত হয়েছে বলে উঠে এসেছে।

ইউনিসেফ বলছে, বাংলাদেশ ও নেপালে তীব্র অপুষ্টিজনিত কারণে শিশুদের চিকিৎসা নেয়ার হার ৮০ শতাংশের বেশি বৃদ্ধি পেয়েছে। একইসাথে শিশুদের টিকাদানের হার কমে গেছে ৩৫ শতাংশ।

প্রতিবেদনটিতে আরো বলা হয়, ২০২০ সালে দক্ষিণ এশিয়ায় শিশুমৃত্যুর হার সর্বাধিক বৃদ্ধি পেয়েছে ভারতে। মহামারিতে দেশটিতে শিশু মৃত্যুর হার বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৫.৪ শতাংশে। এরপরই আছে বাংলাদেশ; ১৩ শতাংশ। অন্যদিকে মাতৃমৃত্যুর হার সবচেয়ে বেশি বৃদ্ধি পেয়েছে শ্রীলঙ্কায়; ২১.৫ শতাংশ। পাকিস্তানে এই হার ২১.৩ শতাংশ।

দারিদ্রতা ও জন্মনিরোধক সামগ্রী ঘাটতির কারণে গত বছর দক্ষিণ এশিয়ায় ৩৫ লাখ অনাকাঙ্ক্ষিত গর্ভধারণের ঘটনা ঘটেছে; যার প্রায় চার লাখই কিশোরী।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh