হেফাজতের সাথে বিএনপির কোনো সম্পর্ক নেই: ফখরুল

হেফাজতে ইসলামের সাথে বিএনপির কোনো সম্পর্ক নেই বলে দাবি করেছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

মঙ্গলবার (৩০ মার্চ) বিকেলে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলন এ দাবি করেন তিনি।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, গণমাধ্যমে প্রচার করা হয়েছে হেফাজতি তাণ্ডব। এ তাণ্ডবে বিএনপি ইন্ধন দিয়েছে, তাদের কর্মসূচি পালনে সমর্থন দিয়েছে বলে দাবি করছেন সরকারের মন্ত্রীসহ অনেকে।  আমি স্পষ্ট বলতে চাই, হেফাজত সাথে আমাদের কোনো সম্পর্ক নেই। স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর দিনে অবৈধ সরকারের পুলিশ ও আওয়ামী সন্ত্রাসীদের গুলিতে মানুষ হত্যার প্রতিবাদে গতকাল ও আজ আমরা কর্মসূচি পালন করেছি। আমাদের হিসেবে গত কয়েকদিনে পুলিশ ও আওয়ামী সন্ত্রাসীদের হামলায় ১৫ জন প্রাণ হারিয়েছে।

মির্জা ফখরুল বলেন, সরকার প্রচার চালাচ্ছে আমরা হেফাজতকে সমর্থন ও উস্কানি দিয়েছি। হেফাজতকে উস্কানি তো দিয়েছে সরকার। হেফাজত কোনো রাজনৈতিক সংগঠন নয়। তারা বায়তুল মোকাররমে সাধারণ একটি বিক্ষোভ করতে চেয়েছিল। কিন্তু আওয়ামী লীগ ও পুলিশ তাদের ওপর দুই দিক থেকে হামলা চালিয়েছে। হেফাজতের কর্মসূচিতে আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনের এক নেতা গুলি করছে, সেই ছবি গণমাধ্যমে প্রকাশও হয়েছে।

করোনা পরিস্থিতি নিয়ে সরকারের সমালোচনা করে ফখরুল বলেন, সরকার ১৮দফা নির্দেশনা দিয়েছে, কিন্তু বাস্তবায়নের কোনো লক্ষণ দেখছি না। সরকারের উদ্যোগটা কোথায়? সরকারের পক্ষ থেকে দৃশ্যমান পদক্ষেপ থাকবে, সেটি কোথায়?

করোনা এই পরিস্থিতিতে বিএনপির কর্মসূচি পালন নিয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল  বলেন, আমরা স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর কর্মসূচি তো আগেই স্থগিত করেছি। বর্তমানে সাধারণ মানুষের ওপর হামলার কারণে রাজনৈতিক কর্মসূচি করতে বাধ্য হয়েছি।

মির্জা ফখরুল বলেন, করোনার সংক্রমণ বাড়ছে, আমাদের অনেক নেতাকর্মী আক্রান্ত হয়েছেন। অল্পবয়সীরাও আক্রান্ত হচ্ছে। ঠিকমতো করোনার পরীক্ষা হচ্ছে না। আমার ধারণা ১০ শতাংশও করোনা টেস্ট হচ্ছে না। সরকার কখনই করোনার বিষয়টি সঠিকভাবে উপলব্ধি করেনি। সুবর্ণজয়ন্তীর উৎসবের আগেই স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে সতর্ক করা হয়েছিল, অবিলম্বে এসব অনুষ্ঠান বন্ধ করা দরকার। কিন্তু সরকার গত বছর মার্চেও উৎসব পালন বন্ধ করেনি, এবারও তারা উৎসব পালন করেছে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক এমরান সালেহ প্রিন্স, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, সহদফতর সম্পাদক তাইফুল ইসলাম টিপু ও শায়রুল কবির খান প্রমুখ।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh