বাবা-মায়ের পাশে চিরনিদ্রায় এমপি আলী আশরাফ

জানাজা শেষে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় পারিবারিক কবরস্থানে তাঁকে বাবা-মায়ের পাশেই সমাহিত করা হয়।

জানাজা শেষে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় পারিবারিক কবরস্থানে তাঁকে বাবা-মায়ের পাশেই সমাহিত করা হয়।

কুমিল্লা-৭ (চান্দিনা) আসনের পাঁচবারের সংসদ সদস্য বর্ষীয়ান আওয়ামী লীগনেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক আলী আশরাফের দাফন সম্পন্ন হয়েছে। 

শনিবার (৩১ জুলাই) বাদ আসর চান্দিনা উপজেলার গল্লাই ইসমাইল দাখিল মাদ্রাসা মাঠে চতুর্থ জানাজা শেষে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় পারিবারিক কবরস্থানে তাঁকে বাবা-মায়ের পাশেই সমাহিত করা হয়।

এর আগে ঢাকায় সংসদ সদস্যের প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এরপর বেলা সাড়ে ১১টার দিকে চান্দিনা মহিলা কলেজ মাঠে দ্বিতীয় জানাজা ও বাদ জোহর দোল্লাই নবাবপুর আহসান উল্লাহ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে তৃতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। 

অধ্যাপক আলী আশরাফের শেষ বিদায়ে তাঁকে সম্মান জানাতে ও জানাজায় অংশ নিতে মানুষের ঢল নামে। 

গতকাল শুক্রবার বিকেল পৌনে ৪টার দিকে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে নিউমোনিয়া রোগে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন অধ্যাপক আলী আশরাফ। তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৪ বছর। প্রবীণ এই নেতার মৃত্যুতে তাঁর নির্বাচনী এলাকাসহ কুমিল্লায় শোকের ছায়া নেমে আসে। তিনি স্ত্রী, চার মেয়ে, একমাত্র পুত্র এফবিসিসিআই পরিচালক মুনতাকিম আশরাফ টিটুসহ অসংখ্য রাজনৈতিক সহচর ও গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

কুমিল্লা (উত্তর) জেলা আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি অধ্যাপক মো. আলী আশরাফের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী, অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল, এলজিআরডিমন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম, কুমিল্লা সদর আসনের সংসদ সদস্য হাজি আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার, দেবীদ্বারের সংসদ সদস্য রাজী মোহাম্মদ ফখরুলসহ বিভিন্ন আসনের সংসদ সদস্য ও আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতারা গভীর শোক প্রকাশ করেন।

চান্দিনার গল্লাই মুন্সীবাড়ির মরহুম মো. ইসমাইল হোসেন মুন্সীর ছেলে আলী আশরাফ ১৯৬২ সালে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজে অধ্যয়নরত অবস্থায় বাংলাদেশ ছাত্রলীগে যোগদান করে রাজনৈতিক অঙ্গনে পা রাখেন।

১৯৭০ সালের প্রাদেশিক নির্বাচনে আলী আশরাফ স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে ‘মই’ প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করেন। ওই নির্বাচনে জয় না পেলেও ‘মাছ’ প্রতীক নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে ১৯৭৩ সালে বাংলাদেশের প্রথম জাতীয় সংসদের সর্বকনিষ্ঠ সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হন।

পরবর্তীতে সব নির্বাচনেই আলী আশরাফ আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী হয়ে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। তিনি ১৯৯৬, ২০০৮, ২০১৪ এবং ২০১৮ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পঞ্চমবারের মতো বিজয় লাভ করেন। ২০০০ সালে তিনি সপ্তম জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকারের দায়িত্ব পালন করেন।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //