যে বিষয়ে রওশনের সাথে একমত হলেন জিএম কাদের

‘পার্টিকে শক্তিশালী করা না গেলে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় টিকে থাকা যাবে না। আমরা কী বিএনপির সমকক্ষ হতে পেরেছি? নিশ্চয় না’ জাতীয় পার্টির চিফ প্যাট্রন ও সংসদের বিরোধী দলীয় নেতা রওশন এরশাদের এমন বক্তব্যে একমত পোষণ করেছেন দলের চেয়ারম্যান জিএম কাদের। 

তিনি জানান, বিগত সময়ে তিনি নিজেও বিষয়টি বারবার বলে আসছেন। রাজনীতিতে বিকল্প শক্তি হিসেবে না দাঁড়াতে পারলে টিকে থাকা কঠিন।

আজ শনিবার (২ জুলাই) রাতে গণমাধ্যমের সাথে আলাপকালে জাপা চেয়ারম্যান ও সংসদের বিরোধী দলীয় উপনেতা জিএম কাদের এসব কথা বলেন।

এদিন দুপুরে দলের চিফ প্যাট্টন রওশন এরশাদ বলেন, ‘পার্টিকে শক্তিশালী করা না গেলে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় টিকে থাকা যাবে না। আমরা কি বিএনপির সমকক্ষ হতে পেরেছি, নিশ্চয় না। বিএনপি আছে, জামায়াত আছে, এটা মনে রাখতে হবে। দলকে আওয়ামী লীগ-বিএনপির সমকক্ষ করতে না পারলে রাজনীতিতে টিকে থাকা যাবে না।’

বিষয়টি নিয়ে বিস্তারিত বলেন জিএম কাদের। তিনি বলেন, ‘এই কথাগুলো আমরা অনেকদিন ধরে বলে আসছি। তৃতীয় শক্তি হওয়া খুব মুশকিল। আওয়ামী লীগ-বিএনপির বিকল্প হচ্ছে জাতীয় পার্টি। এই দুই দল দেশকে ইজারা নেওয়ার মতো পরিচালনা করেছে। দুটো দল গুম, খুন, চাঁদাবাজি, টেন্ডারবাজি, দুর্নীতি করেছে। এসব ক্ষেত্রে দুটো দলই সমান। দেশের মানুষ এখন পরিবর্তন চায়।’

এক্ষেত্রে জাতীয় পার্টির সামনে সুযোগ আছে উল্লেখ করে জিএম কাদের বলেন, ‘আওয়ামী লীগ-বিএনপির বিকল্প হচ্ছে জাতীয় পার্টি। অন্য কোনো দল সামনে আসতে পারছে না। আমরা মানুষের প্রত্যাশা পূরণ করতে পারি। দেশের মানুষের প্রত্যাশা এখন বিকল্প রাজনীতি। মানুষ এখন জাতীয় পার্টিতে আসছে, যোগ দিচ্ছে।’

জিএম কাদের আরো বলেন, ‘এরশাদ সরকারের সময় দেশে গুম খুন ছিল না। তার শাসনামলে আট-নয়জন মানুষ হয়তো আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে নিহত হয়েছে। কিন্তু এখন? এখন তো একদিনেই পুলিশের গুলিতে অনেক মানুষ মারা যায়। আমরা জনগণের কাছে পৌঁছাতে চাই। জাতীয় পার্টি আগের চেয়ে অনেক সংগঠিত ও সফল।’

আগামী দিনের রাজনীতিতে তৃতীয় কোনো পক্ষ টিকবে না বলে মনে করেন জিএম কাদের। তার মন্তব্য, ‘আগামীতে সরকার ও বিরোধী পক্ষ থাকবে। বহুদলীয় গণতন্ত্র খুব মুশকিল। এখানে জোট করতে হয়। জোট করে সবাই নৌকা হয়ে গেছে। ফলে, জাতীয় পার্টি ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ও বিএনপির অল্টারনেটিভ হিসেবে রাজনীতিতে সামনে থাকবে।’

রওশন এরশাদের ডাকে হোটেল ওয়েস্টিনে আয়োজিত শনিবারের সভায় জাতীয় পার্টি থেকে বহিষ্কৃত ও বিদিশার নেতৃত্বাধীন জাতীয় পার্টি পুনর্গঠন প্রক্রিয়ার সাথে যুক্ত একাধিক নেতা অংশগ্রহণ করেন। ওই সভার সূত্রে জানা গেছে, অনুষ্ঠানে জিএম কাদেরসহ সিনিয়র নেতাদের আমন্ত্রণ জানানো হলেও তারা যাননি।

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //