বর্তমান সরকার নির্বাচিত না: গয়েশ্বর

বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য বাবু গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, সকল শ্রেণি-পেশার মানুষের ঐক্যবদ্ধভাবে এই ফ্যাসিস সরকারের পতন এবং একটি অবাধ সুষ্ঠু নির্বাচন বাংলাদেশে অত্যন্ত জরুরি। বর্তমান সরকার নির্বাচিত না। সংবিধানের দোহাই দিয়ে নির্বাচনে তাদের থাকার কোনো অধিকার নাই। যারা দিনের ভোট রাতে কাটে তারা আশেপাশে আছে। তাদের মনোভাব কী জানি না। রহিমের জীবন কেড়ে নিয়ে তাদের মনোভাব কি তাও জানি না।

পুলিশকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, পুলিশ তোমার পোশাক খোল মুজিব কোর্ট গায়ে পরো। আমরা রাষ্ট্রের পোশাককে সম্মান করি তার মানে আপনাদের ভয় করি না।

গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, এই রক্তের মূল্য তাকে দিতেই হবে, এই শহীদের রক্ত কখনোই বৃথা যায়নি বাংলাদেশে শত শহীদের রক্তের বিনিময়ে অর্জিত বাংলাদেশে গণতন্ত্র উদ্ধারের আন্দোলনে আরো রক্ত এর সাথে যোগ করলো। রহিম ও নুর আলম তাদের রক্ত দিয়ে গণমানুষের চেতনাকে আরো উজ্জীবিত করেছে।

তিনি বলেন, সরকার প্রধান কয়েকদিন আগে বলেছেন যে পাবলিকের হাতে হারিকেন ধরিয়ে দিবে। এই যদি প্রধানমন্ত্রীর ভাষা হয় ওনাকে জিজ্ঞেস করি বাঁশটা কার জন্য রাখছেন নিজের জন্য? আমার মনে হয় এই দুটি হত্যাকাণ্ডের মধ্য দিয়ে বাঁশটা সরকার নিজেরটা নিজেই নিবে।

গয়েশ্বর বলেন, মানুষের আয় বাড়েনি ব্যয় বেড়েছে। দিন মজুরে কাজ পায়না। চড়াদামে জিনিস কিনবে কোথা থেকে। একথা বলা কি আমাদের অপরাধ ?

২০০৮ সালে সরকার ঘোষণা দিল শতভাগ বিদ্যুৎ। ২৬ হাজার মেগাওয়ার্ড বিদ্যুৎ উৎপাদনের টার্গেট। শতভাগ বিদ্যুতের নিশ্চয়তা করবে। ২৪ ঘণ্টার মধ্যে যদি ৮ ঘণ্টা ১০ ঘণ্টা লোডশেডিং থাকে। সরকারের হিসাব মতে বর্তমানে দরকার ১১-১২ হাজার মেগাওয়ার্ড বিদ্যুৎ, তাহলে অর্ধেক সময় যদি বাদ থাকে, তাহলে ৬ থেকে ৭ হাজার মেগাওয়ার্ড বিদ্যুৎ। ২৬ হাজা মেগাওয়ার্ড বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য কুইক রেন্টাল ব্যসিসে কুইক কমিশন যার পরিমাণ ১০ লাখ কোটি টাকা বিদেশে পাচার করেছে। আজকে বিদ্যুৎ দিতে পারবেন না তাহলে বিদ্যুতের দাম বাড়ালেন কেন? আমার টাকা দেশের জনগণের টাকা বিদেশে পাচার করেছেন। রিজার্ভের ৬০০ কোটি টাকা কারা লুট করলো তার জবাব দিবেন না ? দিতে হবে। আজকে একটা রাষ্ট্রের যে রিজার্ভ থাকা দরকার সেই পরিমাণ রিজার্ভ নাই।

বিদ্যুতখাতে দুর্নীতি বিরোধী বিক্ষোভে স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা আবদুর রহিম ও ভোলা জেলা ছাত্রদলের সভাপতি নুরে আলমকে হত্যাসহ শতাধিক নেতাকর্মীকে গুলিবিদ্ধ করে আহত করার প্রতিবাদে বরিশালে বিএনপির জনসভায় তিনি এসব কথা বলেন।

আজ বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) বিকেল ৪ টায় নগরের অশ্বিনী কুমার টাউন হল চত্বরে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বরিশাল মহানগর, জেলা দক্ষিণ ও উত্তর জেলা বিএনপির এই জনসভার আয়োজনে করে।

জনসভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামুসুজ্জামান দুদু, ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন, মিডিয়া সেল ও কেন্দ্রীয় নেতা আহবায়ক জহির উদ্দিন স্বপন, কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট বিলকিস আক্তার জাহান শিরিন, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক আকন কুদ্দুসুর রহমান, বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবুল হক নান্নু, যুবদলের সাধারণ সম্পাদক আবদুল মোনায়েম মুন্না, জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান, বিএনপি জেলা দক্ষিণের আহবায়ক অ্যাডভোকেট মজিবর রহমান নান্টু, বরিশাল উত্তরের আহবায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা দেওয়ান মো. শহীদ উল্লাহ।

জনসভায় সভাপতিত্ব করেন, বরিশাল মহানগর বিএনপির আহবায়ক মো. মনিরুজ্জামান খান ফারুক। সঞ্চালনা করেন, মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব অ্যাডভোকেট মীর জাহীদুল কবির জাহীদ।

জনসভায় আরো উপস্থিত ছিলেন, কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য এবায়দুল হক চাঁন, মেজবাহ উদ্দিন ফরহাদ, বরিশাল জেলা দক্ষিণের সদস্য সচিব অ্যাডভোকেট আক্তার হোসেন তালুকদার মেবুল, উত্তরের সদস্য সচিব মিজানুর রহমান মুকুল খান প্রমুখ।

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //