মহাসড়ক বন্ধ করে আ. লীগ প্রার্থীর বিরুদ্ধে মিছিলের অভিযোগ

সাভার উপজেলার ইয়ারপুর ইউনিয়নের উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী মোশাররফ হোসেন মুসা ও তার সমর্থকরা ঢাকা জেলার সাভারের ব্যস্ততম মহাসড়কসহ বিভিন্ন শাখা সড়ক বন্ধ করে মিছিল ও শোডাউন করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এতে কয়েক কিলোমিটার সড়কে যানজটে ভোগান্তিও পোহাতে হয়েছে সাধারণ মানুষদের।

গতকাল সোমবার (২৬ ডিসেম্বর) বিকেল ৪টার দিকে টঙ্গী-আশুলিয়া-ইপিজেড মহাসড়কে মুসার কয়েক হাজার সমর্থক ও দলীয় নেতাকর্মী শোডাউন করলে এলাকায় তীব্র যানজট দেখা দেয়। এতে চরম ভোগান্তিতে পড়েন সাধারণ মানুষ। এছাড়া ঘোষবাগ, জিরাবো, চিত্রশাইল, জামগড়া এলাকার বিভিন্ন শাখা সড়কে শোডাউনের কারণে প্রতিবন্ধকতারও সৃষ্টি হয় বলে জানা গেছে।

জামগড়া এলাকার আলম মিয়া নামের এক বাসিন্দা বলেন, বিকেলে হঠাৎ করে হাজার হাজার মানুষ নিয়ে মিছিল ঢোকে তাদের এলাকায়। এসময় পুরো শাখা সড়কে পায়ে হেটে মিছিল অতিক্রম করারও কোন অবস্থা ছিলো না। রিকশা-ভ্যান গুলোও কোনরকমে সড়কের পাশে দাড় করিয়ে রেখেছিলো। সড়কে এতো মানুষ নিয়ে মিছিল করার কি আছে? জনপ্রিয়তা থাকলে মানুষতো ভোট দেবেই। এভাবে সড়কে প্রতিবন্ধকতা তৈরি করে মানুষকে কষ্ট দেয়ার কোনো মানে নাই।

টঙ্গী-আশুলিয়া-ইপিজেড সড়কে যানজটে আটকে পড়া রাশেদুল ইসলাম নামে এক যাত্রী বলেন, নিশ্চিন্তপুর থেকে জামগড়া পর্যন্ত মাত্র দিই কিলোমিটার সড়ক যেতে প্রায় এক ঘণ্টা সময় লাগছে। পুরো সড়ক জুড়ে হাজার হাজার মানুষের স্লোগান শুনে বুঝলাম কোন রাজনৈতিক দলের মিছিল যাচ্ছে। এসময় সড়কের দুই পাশে শত শত গাড়ি দাড়িয়ে ছিলো।

ইয়ারপুর উপনির্বাচনে নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী মোশাররফ হোসেন মুসাকে একাধিকবার ফোন করা হলেও তা বন্ধ পাওয়া গেছে। এসএমএস পাঠিয়েও কোনো সাড়া মেলেনি তার।

নৌকার মিছিলে অংশ নেওয়া ইয়ারপুর ইউনিয়নের এক নং ওয়ার্ডের মেম্বার হালিম মৃধা বলেন, একবারে জামগড়া হইয়া ঘোষবাগ পর্যন্ত। টঙ্গী-আশুলিয়া-ইপিজেড সড়কের প্রায় দেড় কিলোমিটার রাস্তায় মিছিল হইছে। হাজার দশেক নেতাকর্মী ছিলো। সবাইতো এরকম করে ভাই। অন্য প্রার্থীরাও এরকম করছে। একটু জায়গাতো ইউজ করে নামতে হয়। সরকার মার্কেট থেকে জামগড়া পর্যন্ত জাস্ট এতটুকু রাস্তা ইউজ করা হইছে। যানজট হওয়ার আগেই ফ্যান্টাসি কিংডমের পাশ দিয়ে ঢুকে গেছি।

সাভার উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম বলেন, সড়ক আটকে মিছিল কিংবা শোডাউন আচরণবিধি লঙ্ঘনের শামিল। আমি বিষয়টা জানি না, দেখছি।

প্রসঙ্গত, প্রায় এক বছর দায়িত্ব পালনের পর সম্প্রতি মারা যান সাভার উপজেলার ইয়ারপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সৈয়দ আহমেদ ভূঁইয়া। এরপর নৌকা প্রতীকের মনোনয়ন না পেয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন তার ছেলে ও আশুলিয়া থানা আওয়ামী লীগের বহিষ্কৃত সাংগঠনিক সম্পাদক সুমন আহমেদ ভূঁইয়া। আগামী ২৯ ডিসেম্বর এই ইউনিয়নের উপনির্বাচনে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মোশাররফ হোসেন মুসার সাথে পাঁচজন স্বতন্ত্রসহ মোট সাত জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন।

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2023 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //