বেঁচে থাকলে অনেক কাজ করা যাবে: জিনাত হাকিম

আশরাফুল ইসলাম আকাশ

প্রকাশ: ২২ মে ২০২০, ০১:৫৯ পিএম | আপডেট: ২৩ মে ২০২০, ০৫:১৫ পিএম

নাট্যকার জিনাত হাকিম।

নাট্যকার জিনাত হাকিম।

লকডাউনের কারণে সাধারণ থেকে শুরু করে শোবিজ তারকা ঘরবন্দি সবাই। এমন পরিস্থিতিতে অন্য সবার মতো গৃহবন্দি নাট্য নির্মাতা জিনাত হাকিমের সঙ্গে কথা বলেছেন আশরাফুল ইসলাম আকাশ।

ঘরবন্দি সময় কেমন কাটছে?

আলহামদুলিল্লাহ ভালো কাটছে। মজার বিষয় হলো বিবাহিত জীবনের পরে এই প্রথম এতদিন ধরে নিজের মায়ের বাড়িতে থাকছি। খারাপ একটি মুহুর্তেও যেন কিছুটা ভালো লাগা। এছাড়াও সন্তানদের পড়াশোনা দেখছি।

ঘরবন্দি জীবনে আপনার উপলব্ধি কী?

এমন জীবনে আমরা অভ্যস্ত নই। এত দীর্ঘ সময় ধরে এর আগে কখনোই ঘরে থাকা হয়নি। প্রথম দিকে একটু খারাপ লাগতো এখন মেনে নিয়েছি। ঘর মোছা থেকে শুরু করে কিচেন রুমের সব কাজ করছি। আসলে একটি বাড়িতে হেল্পিং হ্যান্ড কতটা প্রয়োজন এই সময়ে সেটা মানুষকে ভাবাচ্ছে।

ঈদের জন্য কোনো কাজ করেছিলেন?

ঈদ আমাদের জন্য বিশাল একটি বাজার। মার্চ থেকে এই সময়ের মধ্যে বেশকিছু কাজের কথা ছিল; কিন্তু করোনার কারণে সব লন্ডভন্ড হয়ে গেছে।

বিশেষ শর্তে টিভি নাটক ফিরছে, আপনার মতামত কী?

কাজ তো আর একদিনের জন্য নয়, যে হুটহাট কিছু করে ফেলব। করোনার ভয়াবহতা দিনদিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। এই সময়ে কাজ করলে যে কোনো দুর্ঘটনা ঘটে যেতে পারে। বেঁচে থাকলে অনেক কাজ করা যাবে। আগে জীবন, পরে কাজ।

ভক্তদের জন্য কি বার্তা দিবেন?

এই মহামারিতে দিশেহারা পুরো বিশ্ব। এই অসুখের যেহেতু ভ্যাকসিন তৈরী হয়নি তাই ঘরে থাকাই শ্রেয়। এছাড়াও বলব, একজন শিল্পীকে কারও ভালো না-ই লাগতে পারে। তার মানে নয় তাকে অশালীন ভাষায় আক্রমণ করতে হবে। সবাই ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন।

প্রধান সম্পাদক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ | প্রকাশক: নাহিদা আকতার জাহেদী

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Design & Developed By Root Soft Bangladesh