ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্ন ও বাস্তবতা

সম্পাদকীয়

প্রকাশ: ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৪:২০ পিএম

তথ্য-প্রযুক্তিনির্ভর সমাজব্যবস্থার দিকেই এগোচ্ছে সভ্যতা। বাংলাদেশ এর ব্যতিক্রম নয়। আওয়ামী লীগের ২০০৮ সালের নির্বাচনী ইশতেহারে প্রথম ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’ গড়ার অঙ্গীকার ব্যক্ত করা হয়। ইশতেহারে ২০২১ সালের মধ্যে ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্ন পূরণের লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়। ২০০৮ সালের পর থেকে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় রয়েছে। ২০২১ সালের মধ্যে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্য পূরণে যা সহায়ক হয়েছে। ২০১৮ সালের ১১ মে বিশ্বের ৫৭তম রাষ্ট্র হিসেবে ‘বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১’ মহাকাশে প্রেরণের মাধ্যমে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ায় এক ধাপ এগিয়ে গেছে বাংলাদেশ।

২০১৭ সালে ঢাকায় অনুষ্ঠিত ‘ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড’-এর উদ্বোধনী অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রী জানান, দেশে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা পৌঁছেছে আট কোটিতে। এর আগে ২০১৫ সালের ‘ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড’ উদ্বোধনকালে প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন, দেশের ইউনিয়ন, পৌরসভা, উপজেলা ও জেলায় পাঁচ হাজার ২৭৫টি ডিজিটাল সেন্টারের মাধ্যমে জনগণকে ২০০ রকমের সেবা দেয়া হচ্ছে। ই-গভর্ন্যান্স পদ্ধতি চালু, স্কুল-কলেজে তথ্য-প্রযুক্তি শিক্ষা, তথ্য-প্রযুক্তিভিত্তিক শিল্পকারখানা, আইটি পার্ক এবং ফাইবার অপটিক নেটওয়ার্ক গড়ে তোলা এ পাঁচটি ধাপে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার কাজ এগিয়ে চলেছে।

এসব ইতিবাচক পদক্ষেপে সত্ত্বেও, ২০২১ সালের মধ্যে ডিজিটাল বাংলাদেশের গড়ার স্বপ্ন বহুদূরের লক্ষ্য বলেই প্রতীয়মান হচ্ছে। সম্প্রতি প্রকাশিত ব্র্যাক ইনস্টিটিউট অব গভর্ন্যান্স অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (বিআইজিডি) পরিচালিত সমীক্ষা সে আশঙ্কার কথাই আমাদের স্মরণ করিয়ে দেয়। এ সমীক্ষায় বলা হয়, ৫৪ শতাংশ গ্রামীণ পরিবারের ইন্টারনেট ব্যবহারের সুবিধা নেই, ৫৯ শতাংশের স্মার্টফোন নেই ও ৪৯ শতাংশের কম্পিউটার ব্যবহারের সুযোগ নেই। বাংলাদেশের গ্রামীণ অঞ্চলে ডিজিটাল সাক্ষরতার অবস্থা তুলে ধরতে ডিজিটাল লিটারেসি ইনডেক্স (ডিএলআই) সারাদেশে ছয় হাজার ৫০০ গ্রামীণ পরিবারের ওপর এ সমীক্ষাটি পরিচালনা করে। 

অন্যদিকে, জাতিসংঘের আন্তর্জাতিক টেলিকমিউনিকেশন ইউনিয়নের ২০১৯ সালের প্রতিবেদন অনুযায়ী, ‘আইসিটি উন্নয়ন’ সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান ১৪৭তম। একই সংস্থার ‘গ্লোবাল সাইবার নিরাপত্তা’ সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান ১৭৫টি দেশের মধ্যে ৭৮তম। বিশ্ব প্রেক্ষাপটে এ অবস্থান উদ্বেগজনক। জাতিসংঘের আরেক সংস্থা আঙ্কটাডের ‘ই-কমার্স’ সূচকে ১৫১টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশ ৮৮তম অবস্থানে রয়েছে। জাতিসংঘের আরেক সংস্থা ইউএনডিএসএ ‘ই-গভর্নমেন্ট উন্নয়ন’ সূচকে প্রথম ১০০ দেশের মধ্যেই নেই বাংলাদেশ। 

আওয়ামী লীগের নির্বাচনী ইশতেহারের অঙ্গীকার পূরণে সরকারের উচিত হবে- শুধু কম্পিউটার জানা লোক নয়, আইসিটিতে দক্ষ জনশক্তি গড়ে তোলা, এ ক্ষেত্রে মেধাবীদের দেশে ধরে রাখা, সর্বোপরি তথ্য-প্রযুক্তি নিরাপত্তা ইস্যুটি মোকাবেলা করতে দেশীয় সফটওয়্যার ডেভেলপ করার দিকে নজর দেয়া।

প্রধান সম্পাদক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ | প্রকাশক: নাহিদা আকতার জাহেদী

অনলাইন সম্পাদক: আরশাদ সিদ্দিকী | ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Design & Developed By Root Soft Bangladesh