প্রথমবারের মতো ওড়ে স্বাধীন বাংলাদেশের পতাকা

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশ: ০২ মার্চ ২০২১, ০৯:৪২ এএম

জাতীয় পতাকা দিবস আজ ২ মার্চ (মঙ্গলবার)। একাত্তরের এই দিনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কলাভবনে ছাত্রলীগ সভাপতি নূরে আলম সিদ্দিকীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বৃহত্তম ছাত্রসভায় বাংলাদেশের পূর্ণ স্বাধিকার প্রতিষ্ঠার কথা ঘোষিত হয়। 

এই সভা থেকেই ছাত্রসমাজ সেদিন সর্বপ্রথম উড়িয়েছিল স্বাধীন বাংলার পতাকা। 

১৯৭১ সালের ২ মার্চ জাতীয় পরিষদের অধিবেশন স্থগিত হওয়ার পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বটতলায় বিশাল এক সমাবেশ হয়। এ সমাবেশে ছাত্রনেতা আ.স.ম. আবদুর রব বক্তব্য রাখার সময় নগর ছাত্রলীগ নেতা শেখ জাহিদ হোসেন একটি বাঁশের মাথায় পতাকা বেঁধে রোকেয়া হলের দিক থেকে মঞ্চস্থলে মিছিল নিয়ে এগিয়ে আসেন। তখন বাংলাদেশের মানচিত্রখচিত ওই পতাকা প্রথমবারের মতো উত্তোলন করেন আবদুর রব। তিনি সে সময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ইউনিয়নের ভাইস প্রেসিডেন্ট ছিলেন।

শিবনারায়ণ দাশ বাংলাদেশের প্রথম জাতীয় পতাকার অন্যতম ও মূল ডিজাইনার। পূর্ব পাকিস্তানের চিহ্ন চাঁদ তারা ব্যবহার না করার জন্য নতুন এ প্রতীক তৈরি করা হয়েছিল। বাংলাদেশের সবুজ প্রকৃতি বোঝাতে পতাকায় সবুজ রঙ ব্যবহার করা হয়েছিল।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ২৩ মার্চ তার বাসভবনে, স্বাধীনতা ঘোষণার প্রাক্কালে পতাকা উত্তোলন করেছিলেন। পরে ১৯৭২ সালে শেখ মুজিবুর রহমানের সরকার শিবনারায়ণ দাশের ডিজাইন করা পতাকার মধ্যে মানচিত্রটি বাদ দিয়ে পতাকার মাপ, রঙ ও তার ব্যাখ্যা সম্বলিত একটি প্রতিবেদন দিতে বলে পটুয়া কামরুল হাসানকে। কামরুল হাসানের করা পরিমার্জিত রূপটিই বর্তমানে বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা।

প্রধান সম্পাদক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ | প্রকাশক: নাহিদা আকতার জাহেদী

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Design & Developed By Root Soft Bangladesh