শিগগিরই সাড়ে ৫ লাখ মেট্রিক টন চাল আমদানি

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশ: ০৪ মার্চ ২০২১, ০৮:৫৯ এএম

দেশের বর্তমান খাদ্য মজুদ বাড়াতে সরকার জরুরি ভিত্তিতে সাড়ে ৫ লাখ মেট্রিক টন চাল আমদানির সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

গতকাল বুধবার (৩ মার্চ) অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি খাদ্য মন্ত্রণালয়ের আনা এ সংক্রান্ত প্রস্তাবে নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে।

প্রস্তাব অনুযায়ী, আগ্রহী আমদানিকারকদের দরপত্র দাখিলের সময়সীমা কমানো হয়েছে। আগে আন্তর্জাতিক উন্মুক্ত দরপত্র পদ্ধতিতে দরপত্র জমা দেয়ার জন্য ৪২ দিন সময় দেয়া হলেও এবারে সময় কমিয়ে আনা হয়েছে ১০ দিনে।

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, কমিটি জরুরিভাবে চাল আমদানির সুবিধার্থে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আমাদের এ বছর খাদ্যশস্য উৎপাদন কম হয়েছে। চাল উৎপাদনও কম হয়েছে। এছাড়া গত বছর বন্যা ও অতিবৃষ্টির কারণে আমরা আমাদের কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারিনি। এজন্য আমরা চাল আমদানির সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

তিনি আরো বলেন, খাদ্য মন্ত্রণালয় অবশ্য বলেছে- বেশি যাতে আমদানি না করা হয়। কারণ, আমদানি বেশি হয়ে গেলে কৃষক ক্ষতিগ্রস্ত হন। তবে উৎপাদন কম হলেও দেশে খাদ্যের কোনো অভাব নেই।

খাদ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, গত ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত দেশে খাদ্যের মজুত ছিল ৬ লাখ ৪৪ হাজার টন। এর মধ্যে চাল ৫ লাখ ৩৪ হাজার টন, বাকিটা গম। খাদ্য মন্ত্রণালয়ের সাধারণ প্রক্ষেপণ হচ্ছে, নিরাপদ মজুত থাকা উচিত অন্তত ১০ লাখ টন খাদ্য।

শুধু চাল নয়, রাষ্ট্রের জরুরি প্রয়োজনে হঠাৎ সার ও তেল আমদানির প্রয়োজন হলেও ১০ দিনের এই নিয়ম কার্যকর করা যাবে। গণখাতে ক্রয় বিধিমালা (পিপিআর) ৮৩(১)ক-তে আগে বলা ছিল, আন্তর্জাতিক দরপত্র দাখিলের সময়সীমা এমনভাবে নির্ধারণ করতে হবে, যাতে সব দরপত্রদাতার কাছে দরপত্র দাখিলের আহ্বান পৌঁছায়। ঠিকাদার দরপত্রে অংশ নেবেন। সেজন্য ৪২ দিন সময় পাবেন একজন দরপত্রদাতা।

এর আগে ভারত থেকে চাল আমদানির জন্য একই ধরনের প্রস্তাব অনুমোদন দেয়া হয়েছিল।

কমিটি নীতিগতভাবে চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে বঙ্গবন্ধু শিল্প নগরে ‘বেপজা অর্থনৈতিক অঞ্চল’ নির্মাণ ও পতেঙ্গা কন্টেইনার টার্মিনালে পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপ (পিপিপি) অপারেটর নিয়োগের প্রস্তাবও অনুমোদন দিয়েছে।

পাশাপাশি সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি দুটি পৃথক প্রস্তাব অনুমোদন করেছে।

প্রধান সম্পাদক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ | প্রকাশক: নাহিদা আকতার জাহেদী

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Design & Developed By Root Soft Bangladesh