ভাষা নিয়ে সাত মজার তথ্য

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশ: ০৬ মার্চ ২০২১, ১১:৪৯ এএম

জাতিসংঘ শিক্ষা, বিজ্ঞান ও সংস্কৃতি সংস্থা বা ইউনেস্কোর হিসেবে সারাবিশ্বের মানুষ প্রায় ছয় হাজার ভাষায় কথা বলে। এর মধ্যে ৯০ শতাংশ ভাষায় কথা বলা মোট মানুষের সংখ্যা এক লাখেরও কম।

বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরামের হিসেবে, বিশ্বে এখন ইংরেজি ভাষায় কথা বলেন ১৫০ কোটি মানুষ। কিন্তু এদের মধ্যে ৪০ কোটিরও কম মানুষের মাতৃভাষা এটি।

ইংরেজি হচ্ছে বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় যোগাযোগের ভাষা। যখন দুটি মানুষের মাতৃভাষা ভিন্ন হয়, তখন তারা সাধারণত ইংরেজি ভাষাতেই পরস্পরের সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করেন।

নিচে ভাষা নিয়ে সাতটি মজার তথ্য তুলে ধরা হলো-

মোট ভাষা

ইউনেস্কো বলছে, বিশ্বের মানুষ প্রায় ছয় হাজার ভাষায় কথা বলে। এর মধ্যে কমপক্ষে ৪৩ শতাংশ ভাষা বিলুপ্তির আশঙ্কায় রয়েছে। আরেক হিসেব বলছে, ছয় হাজার ভাষার মধ্যে ৯০ শতাংশ ভাষায় কথা বলা মোট মানুষের সংখ্যা এক লাখেরও কম হতে পারে। যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক এসআইএল ইন্টারন্যাশনালের প্রকাশনা ‘এথনোলোগ’-এর হিসেবে, বিশ্বে বর্তমানে ভাষার সংখ্যা ৭,১৩৯।

সবচেয়ে বেশি ভাষার দেশ

পাপুয়া নিউ গিনির জনসংখ্যা প্রায় আশি লাখ। এথনোলোগের হিসেবে, সে দেশের মানুষ ৮৪০ ভাষায় কথা বলে! তবে অফিসিয়াল ভাষা তিনটি- ইংরেজি, টক পিসিন ও হিরি মটু। এই তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে থাকা ইন্দোনেশিয়ায় ভাষার সংখ্যা ৭১২। এরপর ক্রমান্বয়ে আছে নাইজেরিয়া (৫২২), ভারত (৪৫৪) ও যুক্তরাষ্ট্র (৩২৬)।

মহাকাশে ঘুরছে বাংলা

সৌরজগৎ নিয়ে গবেষণা করতে ১৯৭৭ সালে নাসা ভয়েজার ১ ও ২ মহাকাশযান প্রেরণ করে৷ প্রতিটিতে একটি করে সোনালি ডিস্ক রয়েছে। এতে পৃথিবীর বিভিন্ন শব্দ ছাড়াও আছে ৫৫ ভাষায় বলা শুভেচ্ছা বার্তা। এরমধ্যে বাংলাও আছে। সুব্রত মুখার্জি বলছেন, ‘নমস্কার, বিশ্বের শান্তি হোক।’ মহাকাশযান দুটি এখনো মহাকাশে সক্রিয় আছে।

ইংরেজি ভাষায় সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত বর্ণ

২০১৮ সালে রিডার্স ডাইজেস্টের এক প্রতিবেদন জানায়, ‘কনসাইস অক্সফোর্ড ইংলিশ ডিকশনারি’তে থাকা প্রায় ২৪ হাজার শব্দে যত বর্ণ ব্যবহৃত হয়েছে তার মধ্যে ‘ই’ বর্ণের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি, প্রায় ১১ শতাংশ। এরপরেই আছে ‘এ’। ‘ই’ এর চেয়ে প্রায় ছয় হাজার শব্দে পিছিয়ে আছে ‘এ’ বর্ণ। নরওয়েজিয়ান, ফিনিশ, ফ্রেঞ্চ ও ইতালিয়ান ভাষায়ও ‘ই’ এর অনেক ব্যবহার আছে।

সবচেয়ে নতুন ভাষা লাইট ওয়ার্লপিরি

অস্ট্রেলিয়ার উত্তরাঞ্চলে ওয়ার্লপিরি আদিবাসী গোষ্ঠীর বাস। তারা ‘ওয়ার্লপিরি’ ভাষায় কথা বলে। তাদের সংখ্যা ৩-৪ হাজার। ৭০/৮০-র দশকে ওয়ার্লপিরি মা-বাবা সন্তানদের সাথে কথা বলার সময় ইংরেজি ও ‘ক্রিয়ল’ ভাষার শব্দ ব্যবহার করতেন। এই তিন ভাষা শোনা শিশুরা নিজেদের মধ্যে কথা বলার সময় আলাদা এক ভাষার জন্ম হয়, যা ‘লাইট ওয়ার্লপিরি’ নাম পেয়েছে। ওই শিশুরা এতদিনে বড় হয়েছে। এখন তাদের সন্তানরাও এই ভাষা ব্যবহার করছে।

করোনার কারণে ভাষায় সর্বোচ্চ শব্দ যোগ

জার্মানির ‘লাইবনিৎস ইনস্টিটিউট ফর দ্য জার্মান ল্যাঙ্গুয়েজ’ জানিয়েছে, ২০২০ সালে প্রায় এক হাজার ২০০ নতুন জার্মান শব্দ তৈরি হয়েছে। সাধারণত গড়ে প্রতি বছর প্রায় ২০০ নতুন জার্মান শব্দ তৈরি হয়। কিন্তু করোনার কারণে গতবছর রেকর্ড সংখ্যক শব্দ পাওয়া গেছে। যেমন করোনাম্যুডে (করোনায় ক্লান্ত), করোনাফ্রিজুয়া (করোনা হেয়ারস্টাইল), ইম্ফনাইড (টিকা পাওয়া ব্যক্তিদের প্রতি ঈর্ষা) ইত্যাদি।

বানানো ভাষা

গেম অফ থ্রোনসের যাযাবর গোষ্ঠী ডোথরাকির সদস্যরা ডোথরাকি ভাষায় কথা বলেন। এই টিভি সিরিজের জন্য ডোথরাকি ভাষাটি তৈরি করেন ল্যাঙ্গুয়েজ ক্রিয়েটর ডেভিড পিটারসন। এমন প্রায় দুশোর মতো ভাষার সন্ধান পাওয়া যায় যেগুলো বিভিন্ন বই, ফিল্ম ও টিভি সিরিজের প্রয়োজনে বানানো হয়েছে। -ডয়চে ভেলে ও বিবিসি

প্রধান সম্পাদক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ | প্রকাশক: নাহিদা আকতার জাহেদী

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Design & Developed By Root Soft Bangladesh