রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আগুন: ৭ জনের মরদেহ উদ্ধার

কক্সবাজার প্রতিনিধি

প্রকাশ: ২৩ মার্চ ২০২১, ১১:৩৫ এএম

ধ্বংসস্তুপ থেকে অক্ষত কিছু পাওয়া যায় কি না- খুঁজে ফিরছেন এক রোহিঙ্গা নারী। ছবি: বিবিসি

ধ্বংসস্তুপ থেকে অক্ষত কিছু পাওয়া যায় কি না- খুঁজে ফিরছেন এক রোহিঙ্গা নারী। ছবি: বিবিসি

কক্সবাজারের উখিয়ায় বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় এ পর্যন্ত দুই শিশুসহ সাতজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

এ ঘটনায় প্রায় ১১ হাজার রোহিঙ্গা বসতি ও শতাধিক স্থানীয়দের ঘর পুড়ে গেছে বলে বলে জানিয়েছে ফায়ার সার্ভিস।

আজ মঙ্গলবার (২৩ মার্চ) কক্সবাজার ফায়ার স্টেশনের সিনিয়র স্টেশন অফিসার শাহদাত হোসেন বলেন, আগুন রাতে নিয়ন্ত্রণে এলেও পোড়া ধ্বংস্তুপের কোথাও কোথাও ধোঁয়া দেখা যাচ্ছে। ফায়ার সার্ভিস কর্মীদের পাশাপাশি স্থানীয়রা ধ্বংসস্তূপ সরাতে কাজ করছেন। 

তিনি আরো বলেন, আমরা এ পর্যন্ত সাতজন রোহিঙ্গার লাশ উদ্ধার করে এপিবিএনকে হস্তান্তর করেছি। তাদের মধ্যে দুটি শিশু, দুজন নারী ও বাকি তিনজন পুরুষ।

ক্যাম্পে আগুন লাগার পর পালংখালী ইউনিয়নের বালুখালী আবুল কাশেম উচ্চ বিদ্যালয়ে একটি প্রাথমিক চিকিৎসা কেন্দ্র খোলা হয় বিভিন্ন এনজিওর পক্ষ থেকে।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান গফুর উদ্দিন চৌধুরী জানিয়েছেন, রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আগুনের ঘটনায় হাজার হাজার রোহিঙ্গা বালুখালী কাসেম মিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে আশ্রয় নিয়েছে। আশ্রয় নেয়া এসব রোহিঙ্গাদের অনেকের স্বজন নিখোঁজ রয়েছে। এছাড়াও স্থানীয় বাংলাদেশি অন্তত দেড় শতাধিক পরিবারের বসতি পুড়ে গেছে। এছাড়াও পুড়ে গেছে দেশি বিদেশি বিভিন্ন এনজিও অফিস ও পুলিশ ব্যারাক।

এর আগে গতকাল সোমবার (২২ মার্চ) বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে বালুখালী ৯ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। এরপর একে একে আটটি রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। ফায়ার সার্ভিস ও সেনাবাহিনীর কয়েকটি ইউনিট সাত ঘণ্টা চেষ্টার পর রাত সাড়ে ১০টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। 

বালুখালী ৯ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ইনচার্জ মোহাম্মদ তানজীম জানান, আগুন লাগার খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের উখিয়া স্টেশন, রামু স্টেশন ও কক্সবাজার স্টেশনের চারটি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করে।

ওই ক্যাম্পের অধিবাসী সৈয়দ আলম বলেন, তার ঘর যেই ব্লকে সেটিসহ অন্তত ১২৬টি ব্লক পুরো পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এসব ব্লকের কোনটিতে ১৩০, কোনটিতে ১৬৫, কোনটিতে ১৯০টি করে পরিবার বসবাস করে আসছিলেন।  

তিনি আরো বলেন, আমার ঘরবাড়ি সব পুড়ে গেছে। সব সাফ হয়ে গেছে। কিছু নাই এখানে। হাজার হাজার ঘর ছাই হয়ে গেছে। কোনো কিছু বের করতে পারিনি ঘর থেকে। পুরো এলাকার চিত্রই এমন।

প্রধান সম্পাদক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ | প্রকাশক: নাহিদা আকতার জাহেদী

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Design & Developed By Root Soft Bangladesh