ব্রিটেনে ৩০’র কমবয়সীদের অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা নয়

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশ: ০৮ এপ্রিল ২০২১, ১২:৩৬ পিএম

করোনাভাইরাসের অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় ও অ্যাস্ট্রাজেনেকার উদ্ভাবিত টিকার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার ব্যাপারে একই সাথে দুটি মূল্যায়নের ওপর রিপোর্ট প্রকাশ করা হয়েছে।

গতকাল বুধবার (৭ এপ্রিল) প্রকাশিত মূল্যায়ন দুইটির একটি ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের ওষুধ নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ ইএমএ’র ও অপরটি যুক্তরাজ্যের মেডিকেল উপদেষ্টা সংস্থা এমএইচআরএ’র।

ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) ওষুধ কর্তৃপক্ষ বলছে, এই টিকার ঝুঁকির চাইতে সুফল অনেক বেশি, এটি অত্যন্ত কার্যকর ও এটি মানুষের জীবন রক্ষা করছে।

তবে ইএমএ বলছে, রক্ত জমাট বাঁধার সমস্যাটিকে অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার একটি ‘অতি বিরল পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া’ হিসেবে তালিকাভুক্ত করা উচিত। তবে তারা আরো বলছে, ইইউয়ের দুই কোটি মানুষকে ভ্যাকসিন দেয়া হয়েছে ও তার মধ্যে ৮৬ জনের ক্ষেত্রে রক্ত জমাট বাঁধার ঘটনা ঘটেছে।

এসব ক্ষেত্রে কোনো সুনির্দিষ্ট কার্যকারণগত সম্পর্ক পাওয়া যায়নি। তবে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই ৬০ বছরের কমবয়স্ক নারীর মধ্যে এটি ঘটতে দেখা গেছে- তবে কিছু ক্ষেত্রে পুরুষদের মধ্যেও এটা হতে দেখা গেছে।

অন্যদিকে এমএইচআরএ বলছে, দুই কোটি অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা দেয়া হয়েছে ও তার মধ্যে ৭৯ জনের ক্ষেত্রে রক্ত জমাট বাঁধার ঘটনা ঘটেছে এবং এদের মধ্যে মারা গেছে ১৯ জন।

কিন্তু এসব পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া অতি বিরল ও টিকাটির কার্যকারিতা এখন প্রমাণিত। তবে এ কারণে এখন ব্রিটেনে ৩০ বছরের কমবয়স্কদের অ্যাস্ট্রাজেনেকার পরিবর্তে অন্য কোনো টিকা দেয়া হবে। তবে যারা ইতোমধ্যেই প্রথম ডোজ অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা নিয়েছেন তাদের দ্বিতীয় ডোজ নেবার জন্যও পরামর্শ দেয়া হয়।

ইএমএ’র রিপোর্ট নিয়ে আলোচনার জন্য ইউরোপের ২৭টি সদস্য দেশের স্বাস্থ্যমন্ত্রীরা এক বৈঠকে বসেছেন ও রয়টার বার্তা সংস্থা বলছে, ইউরোপে করেনাভাইরাস প্রতিরোধী টিকাদান কর্মসূচির ওপর এ রিপোর্টের কিছু প্রভাব পড়বে বলে মনে করা হচ্ছে। -বিবিসি

প্রধান সম্পাদক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ | প্রকাশক: নাহিদা আকতার জাহেদী

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Design & Developed By Root Soft Bangladesh