সালথায় সহিংসতা: সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান গ্রেফতার

ফরিদপুর প্রতিনিধি

প্রকাশ: ২০ এপ্রিল ২০২১, ০৯:৪৬ পিএম

ফরিদপুরের সালথায় গত ৫ এপ্রিল রাতে সহিংসতার ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মো. ওয়াহিদুজ্জামানকে (৪০) গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল) বিকেলে তাকে জেলার মুখ্য বিচারিক হাকিমের আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

সোমবার (১৯ এপ্রিল) রাতে ডিবি পুলিশের একটি দল ফরিদপুর শহরের ঝিলটুলি এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে।

ওয়াহিদুজ্জামান উপজেলার ভাওয়াল ইউনিয়নের ইউসুফদিয়া গ্রামের মৃত আব্দুল হাই মোল্লার ছেলে।

ওয়াহিদুজ্জামান ২০১৪ সালে বিএনপির সমর্থন নিয়ে সালথা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। ২০১৫ সালের ১৯ আগস্ট তিনি ফরিদপুর-২ (নগরকান্দা, সালথা) আসনের সংসদ সদস্য ও জাতীয় সংসদের উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরীর হাতে ফুল দিয়ে আওয়ামী লীগে যোগ দেন।

ফরিদপুর ডিবি পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুনিল কর্মকার বলেন, সালথায় সরকারি অফিসে তাণ্ডবের ঘটনায় গ্রেফতার সাত আসামি আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। ওই জবানবন্দিতে ওয়াহিদুজ্জামানের নাম উঠে আসায় তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। 

তিনি বলেন, ওয়াহিদুজ্জামানের ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল) বিকেলে তাকে জেলার মুখ্য বিচারিক হাকিমের আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। এছাড়াও মামলার অন্যান্য আসামিদের আটকে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

সালথার সহিংসতার ঘটনায় এখন পর্যন্ত মোট সাতটি মামলা করা হয়েছে। এতে মোট ৩৬৪ জনকে এজাহারভুক্ত আসামি করা হয়েছে। অজ্ঞাতনামা আসামি দেখানো হয়েছে আরও চার হাজার জনকে।

মামলায় মঙ্গলবার পর্যন্ত ৯৯ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এর মধ্যে ৯৫ জনকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। দুইজন আসামি গুলিবিদ্ধ হয়ে পুলিশ প্রহরায় চিকিৎসাধীন রয়েছেন। অপর দুইজন আসামি চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। 

গত ৫ এপ্রিল রাতে সালথা উপজেলা পরিষদের বিভিন্ন সরকারি অফিসে তাণ্ডব চালায় কয়েক হাজার উত্তেজিত জনতা। এ সময় দুটি সরকারি গাড়িসহ কয়েকটি মোটরসাইকেল পুড়িয়ে দেয় তারা।

প্রধান সম্পাদক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ | প্রকাশক: নাহিদা আকতার জাহেদী

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Design & Developed By Root Soft Bangladesh