উত্তরাঞ্চলে আকস্মিক বন্যার শঙ্কা

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশ: ০৪ জুলাই ২০২১, ০৩:৫৪ পিএম | আপডেট: ০৪ জুলাই ২০২১, ০৪:২২ পিএম

উত্তরাঞ্চলের কতিপয় স্থানে আকস্মিক বন্যা হতে পারে। ফাইল ছবি

উত্তরাঞ্চলের কতিপয় স্থানে আকস্মিক বন্যা হতে পারে। ফাইল ছবি

দেশের উত্তরাঞ্চলের তিস্তা, ধরলা, দুধকুমার নদীর পানি দ্রুত বৃদ্ধি পেয়ে কিছুস্থানে আকস্মিক বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হতে পারে।

আগামী ৪৮ ঘন্টায় দেশের উত্তরাঞ্চল, উত্তর-পূর্বাঞ্চল এবং এর কাছাকাছি ভারতের হিমালয় পাদদেশীয় পশ্চিমবঙ্গ, সিকিম, আসাম ও মেঘালয় প্রদেশের সকল স্থানে ভারী বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস আছে। ভারী বৃষ্টিপাতের ফলে এসব অঞ্চলে আকষ্মিক বন্যা হতে পারে বলে বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদফতর ও ভারত আবহাওয়া অধিদফতর তথ্যসূত্রে জানা গেছে।

এ সময়ে দেশের উত্তরাঞ্চলের তিস্তা, দুধকুমার ও ধরলা নদীগুলোর পানি সময়বিশেষে দ্রুত বৃদ্ধি পেয়ে কতিপয় স্থানে আকস্মিক বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হতে পারে।

এ বিষয়ে বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আরিফুজ্জামান ভূঁইয়া বলেন, ‘উত্তরাঞ্চলের তিস্তা, দুধকুমার ও ধরলা নদীগুলোর আশপাশের জেলা লালমনিরহাট, নীলফামারী, রংপুরে আগামী দুইদিনের মধ্যে আকস্মিক বন্যা হতে পারে। অন্যান্য জেলায়ও হতে পারে, তবে সেটা আরো পরে।’

আজ বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের দেয়া এক পূর্বাভাসে জানা যায়, ব্রক্ষ্মপুত্র-যমুনা নদ ও নদীর পানি বাড়ছে।  আগামী তিনদিন পর্যন্ত এই বৃদ্ধি অব্যাহত থাকতে পারে। দেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের আপার মেঘনা অববাহিকার প্রধান নদ নদীর পানি স্থিতিশীল আছে, যা আগামী ২৪ ঘন্টায় হ্রাস পেতে পারে। গঙ্গা-পদ্মা নদীর পানি স্থিতিশীল আছে, যা আগামী ২৪ ঘন্টা পর্যন্ত অব্যাহত থাকতে পারে।  

গত ২৪ ঘন্টায় উল্লেখযোগ্য বৃষ্টিপাত হয়েছে- ডালিয়ায় ১৪৩ মিলিমিটার, রাজশাহী ও জামালপুরে ১০০ মিলিমিটার, ফরিদপুরে ৯৬ মিলিমিটার, কুমিল্লায় ৭০ মিলিমিটার।

দেশের ১০১টি পানি পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রের মধ্যে বৃদ্ধি পেয়েছে ৫৮টি, হ্রাস পেয়েছে ৩৮টি এবং অপরিবর্তিত রয়েছে চারটিতে।

প্রধান সম্পাদক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ | প্রকাশক: নাহিদা আকতার জাহেদী

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Design & Developed By Root Soft Bangladesh