১৭ লাখ সিমধারী ঢাকা ছেড়েছেন

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশ: ১৮ জুলাই ২০২১, ০৯:০৩ পিএম | আপডেট: ১৮ জুলাই ২০২১, ০৯:১২ পিএম

ছবি: স্টার মেইল

ছবি: স্টার মেইল

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে সরকারের দেয়া বিধিনিষেধ শিথিল ঘোষণার পর থেকেই দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে ঈদ করতে লাখ লাখ মানুষ ঢাকা ছাড়ছেন। এর মধ্যে গত বৃহস্পতিবার (১৫ জুলাই) ও শুক্রবার (১৬ জুলাই) দুই দিনে ঢাকা ছেড়েছেন প্রায় ১৭ লাখ মানুষ।

রবিবার (১৮ জুলাই) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এমন তথ্য জানিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।

মোস্তাফা জব্বার তার ফেসবুক পোস্টে লিখেন, গত ঈদের মতো এবারও বিটিআরসি ঢাকা ছেড়ে যাওয়া সিমের হিসাব দিলো। গত ১৫ ও ১৬ জুলাই ঢাকা ছেড়েছে মোট ১৬ লাখ ৯৩ হাজার ৬৮৭ সিম ব্যবহারকারী।

তিনি জানিয়েছেন, ঢাকা ছেড়ে যাওয়া এসব সিম ব্যবহারকারীদের মধ্যে রয়েছেন গ্রামীণফোনের গ্রাহক সাত লাখ ৭৪ হাজার ৮৮৪ জন, রবি সিমের গ্রাহক তিন লাখ ৪২ হাজার ৮২ জন, বাংলালিংকের সিম ব্যবহারকারী চার লাখ ৬৪ হাজার ৪৯২ জন এবং টেলিটক মোবাইলের গ্রাহক এক লাখ ১২ হাজার ২২৯ জন।

সবমিলিয়ে দুই দিন ঢাকার বাইরে গেছেন ১৬ লাখ ৯৩ হাজার ৬৮৭ জন। এর মধ্যে গত ১৫ জুলাই ঢাকার বাইরে গেছেন ৭ লাখ ৩১ হাজার ৪৬৯ জন ও ১৬ জুলাই গেছেন ৯ লাখ ৬২ হাজার ২১৮ জন।

এ বিষয়ে মোস্তাফা জব্বার বলেন, আমি আজকে তথ্যগুলো পেয়েছি। ফেসবুকে তা প্রকাশ করেছি। এ পরিসংখ্যান দিয়ে কিন্তু সঠিকভাবে বলা যাবে না যে এতোগুলো মানুষ ঢাকা ছেড়েছেন। মানুষের সংখ্যা এর চেয়ে কমও হতে পারে। তবে কত শতাংশ কম হবে এটা বলা কঠিন।

তিনি বলেন, এটা মূলত ঢাকার বাইরে যাওয়া সিমের হিসাব। লোকজনের হিসাব নয়। কারণ ১৮ বছরের নিচে অনেকেই গেছেন কিন্তু তাদের সিম নেই। আবার একেকজনের কাছে দু-তিনটা করে সিম। কারও স্বামীর দুই-তিনটা সিম কিন্তু বউয়ের একটি। আবার অনেক পরিবারে শিশু আছে; তাদের মোবাইল ও সিম নেই।

তিনি জানান, আমার কাছে মনে হয়েছে, গত ঈদুল ফিতরের চেয়ে তুলনামূলকভাবে ঈদুল আজহায় অনেকটাই কম মানুষ ঢাকা ছেড়েছেন।

তবে সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন, মোবাইল ব্যবহারকারীর চেয়ে ঢাকা ছেড়ে যাওয়া মানুষের সংখ্যা বেশি। কারণ অধিকাংশই পরিবার নিয়ে ঢাকা ছাড়ছেন। একটা পরিবারের সবাই মোবাইল ব্যবহার করে না, বিশেষ করে অল্প বয়সীরা। আবার অনেকেই আছেন একাধিক সিম ব্যবহার করেন। 

প্রধান সম্পাদক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ | প্রকাশক: নাহিদা আকতার জাহেদী

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Design & Developed By Root Soft Bangladesh