জাপানি দুই শিশু ১৫ দিন মা-বাবার সঙ্গেই থাকবে

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশ: ৩১ আগস্ট ২০২১, ০৪:৪০ পিএম | আপডেট: ৩১ আগস্ট ২০২১, ০৫:৫৩ পিএম

জাপানি মা ও বাংলাদেশি বাবার দুই সন্তান আগামী ১৫ দিন গুলশানের ভাড়া বাসায় উভয়ের সাথেই থাকবে।

জাপানি মা ও বাংলাদেশি বাবার দুই সন্তান আগামী ১৫ দিন গুলশানের ভাড়া বাসায় উভয়ের সাথেই থাকবে।

জাপানি মা ও বাংলাদেশি বাবার দুই সন্তান আগামী ১৫ দিন গুলশানের ভাড়া বাসায় উভয়ের সাথেই থাকবে। তাদের নিরাপত্তার বিষয়টি দেখাশোনা করবেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার। আর বিষয়টি তদারকি করবেন সমাজসেবা অধিদফতরের উপ-পরিচালক।

শিশু দুটিকে ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারের পরিবর্তে উন্নত হোটেলে রাখার বিষয়ে বাংলাদেশী বাবা ও জাপানি মায়ের মতামত নিয়ে শুনানিতে মঙ্গলবার দুপুরে হাইকোর্টের বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত ভার্চুয়াল বেঞ্চ এমন আদেশ দেন।

আদালতে আজ শিশু দুটির মায়ের পক্ষে মোহাম্মদ শিশির মনির ও বাবার পক্ষে অ্যাডভোকেট ফাওজিয়া করিম ফিরোজ শুনানি করেন।

শুনানির একপর্যায়ে ওই দুই শিশু জেসমিন মালিকা ও লাইলা লিনা বাবার কাছে নাকি মায়ের কাছে থাকতে চায় সে বিষয়ে তাদের সাথে একান্তে কথাও বলেছেন হাইকোর্ট। বিচারপতিদের খাস কামরায় প্রায় আধাঘণ্টা শিশুদের সাথে কথা বলার পর আদালত উভয়পক্ষের আইনজীবীদের বলেন, আমরা চাই শিশুরা পারিবারিক পরিবেশে থাকুক। আপনারা সবাই বিষয়টি পজিটিভলি দেখুন।

পূর্ব নির্দেশনা অনুযায়ী এদিন মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে তেজগাঁও ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টার থেকে সিআইডির একটি গাড়িতে করে মেয়ে দুটিকে নিয়ে হাইকোর্টের পথে রওয়ানা হন কর্মকর্তারা। অপর একটি গাড়িতে করে যান তাদের বাবা।

এর আগে জাপানি মা এরিকোর এক রিট আবেদনের শুনানি শেষে ১৯ আগস্ট জাপানি এই দুই শিশু ও তাদের বাবা শরীফ ইমরানকে এক মাসের জন্য দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা দেন হাইকোর্ট। একইসাথে দুই শিশুকে আগামী ৩১ আগস্ট আদালতে হাজির করার নির্দেশ দেয়া হয়।

বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ শিশির মনির। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিপুল বাগমার।

ওই দিন সকালে দুই কন্যাসন্তানকে আদালতে হাজির করার নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে হেবিয়াস কর্পাস আবেদন করেন জাপানি চিকিৎসক নাকানো এরিকো (৪৬)। রিটে দুই কন্যাসন্তানকে নিজের জিম্মায় নেয়ার নির্দেশনা চান ওই নারী।

এরপর ২২ আগস্ট রাজধানীর খিলগাঁও এলাকায় বাবার বাসা থেকে রাতে শিশু দু’টি উদ্ধার করে সিআইডি। পরদিন উভয় পক্ষের আবেদনের শুনানি শেষে হাইকোর্ট ওই দুই শিশুকে আগামী ৩১ আগস্ট পর্যন্ত তেজগাঁওয়ের ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারে উন্নত পরিবেশে রাখার নির্দেশ দেন। এই সময়ের মধ্যে প্রতিদিন সকাল ৮টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত জাপানি মা ও বিকেল ৩টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত বাংলাদেশী বাবা শিশুদের সাথে সময় কাটাতে পারবেন। ৩১ আগস্ট শিশুদেরকে হাইকোর্টে হাজির করতে হবে। ওইদিন আদালত পরবর্তী আদেশ দেবেন।

প্রসঙ্গত, ২০০৮ সালে জাপানি চিকিৎসক নাকানো এরিকো (৪৬) ও বাংলাদেশি-আমেরিকান নাগরিক শরীফ ইমরান (৫৮) জাপানি আইন অনুযায়ী বিয়ে করে টোকিওতে বসবাস শুরু করেন। তাদের ১২ বছরের সংসারে তিন কন্যাসন্তান জন্ম হয়। তারা তিনজনই টোকিওর চফো সিটিতে অবস্থিত আমেরিকান স্কুল ইন জাপানের শিক্ষার্থী ছিল।

প্রধান সম্পাদক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ | প্রকাশক: নাহিদা আকতার জাহেদী

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Design & Developed By Root Soft Bangladesh