গণমাধ্যমকর্মীকে বাঁচাতে প্রাণ দিলেন মন্ত্রী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশ: ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:৪২ পিএম

রাশিয়ার ইমার্জেন্সিস মন্ত্রী ইয়েভজেনি জিনিচেভ

রাশিয়ার ইমার্জেন্সিস মন্ত্রী ইয়েভজেনি জিনিচেভ

একজন গণমাধ্যমকর্মীকে (ক্যামেরাপারসন) বাঁচাতে গিয়ে প্রাণ দিয়েছেন রাশিয়ার জরুরি পরিস্থিতি মোকাবিলাবিষয়ক (ইমার্জেন্সিস) মন্ত্রী ইয়েভজেনি জিনিচেভ।দেশটির সংবাদ সংস্থা আরআইএ ও আরটির বরাত দিয়ে এ খবর প্রকাশ করেছে রয়টার্স ও দ্য গার্ডিয়ান।

বুধবার (৮ সেপ্টেম্বন) আর্কটিক অঞ্চলে আন্তমন্ত্রণালয়ের প্রশিক্ষণ চলাকালে মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটে।

আরটি টেলিভিশন চ্যানেলের এডিটর-ইন-চিফ মার্গারিটা সিমোনিয়ান বলেন, ‘প্রশিক্ষণ চলাকালে ইমার্জেন্সিস মন্ত্রী ইয়েভজেনি জিনিচেভ একজন ক্যামেরাম্যানের সঙ্গে একটি খাড়া খাঁজের কিনারায় দাঁড়িয়েছিলেন। এ সময় ওই সংবাদকর্মী পা পিছলে অনেক নিচে পানিতে পড়ে যান।

এ সময় সেখানে উপস্থিত কেউ বুঝে ওঠার আগেই ক্যামেরাপারসনকে বাঁচাতে পানিতে ঝাঁপ দেন ৫৫ বছর বয়সী এই মন্ত্রী। তবে পানির নিচে লুকিয়ে থাকা পাথরের আঘাতে ঘটনাস্থলে মৃত্যু হয় তার।

সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ানের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, অ্যালেক্সজেন্ডার মেলনিক নামের সেই সংবাদকর্মীরও হৃদয়বিদারক মৃত্যু হয়। সুপরিচিত এই চিত্রপরিচালক ২০১৫ সালে টেরিটোরি নামের একটি প্রামাণ্যচিত্র তৈরি করেছিলেন, যেখানে দেখানো হয় রাশিয়ার সর্ব-উত্তরের একটি সোনার খনির উৎস।

মন্ত্রী হওয়ার আগে দেশটির গোয়েন্দা সংস্থা কেজিবির উপপরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন জিনিচেভ। কিছু সময়ের জন্য তিনি কালিনিনগ্রাদ অঞ্চলে রিজিওনাল গভর্নরের দায়িত্বে ছিলেন।

এর আগে কেজিবির এই সদস্য প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের দেহরক্ষী ও ব্যক্তিগত দূতের দায়িত্ব পালন করেছিলেন। ২০১৬ সালের প্রথম দিকে পুতিন তাকে রাজনীতিতে নিয়ে আসেন। এরপর তিনি কালিনিনগ্রাদ অঞ্চলে রিজিওনাল গভর্নরের দায়িত্ব পান।

ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকোভ জানান, জিনিচেভের মৃত্যুতে গভীর শোক জানিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রী দিমিত্রি মেদভেদেভ ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী মিখাইল মিসহাসতিন তার মৃত্যুতে আলাদা শোকবার্তা দিয়েছেন।

প্রধান সম্পাদক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ | প্রকাশক: নাহিদা আকতার জাহেদী

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Design & Developed By Root Soft Bangladesh