নড়াইলে সাংবাদিককে হয়রানি, পুলিশের নিউজ বয়কটের ঘোষণা

নড়াইল প্রতিনিধি

প্রকাশ: ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৬:০৯ পিএম

নড়াইল প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন

নড়াইল প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন

পুলিশের বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশের জের ধরে নড়াইল প্রেসক্লাবের সদস্য, দেশ টেলিভিশনের নড়াইল জেলা প্রতিনিধি এবং নড়াইল নিউজ ২৪.কমের সম্পাদক ও প্রকাশক শরিফুল ইসলাম বাবলুকে পুলিশ কর্তৃক হয়রানির প্রতিবাদে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

সাংবাদিক সমাজের আয়োজনে শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) দুপুরে নড়াইল প্রেসক্লাবের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

এ সময় বক্তব্য রাখেন- নড়াইল প্রেসক্লাবের সভাপতি এনামুল কবীর টুকু, সাধারণ সম্পাদক শামীমূল ইসলাম টুলু, সাংবাদিক কার্তিক দাস, সাথী তালুকদার, মলয় নন্দী, কাজী হাফিজুর রহমান, সাইফুল ইসলাম তুহিন, শেখ বদরুল আলম টিটো ও ওমর ফারুক। পরে সাংবাদিক নেতারা জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি পেশ করেন।  

বক্তারা বলেন, পুলিশের বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশের জের ধরে নড়াইলের পুলিশ সুপারের নির্দেশে গভীর রাতে দেশ টেলিভিশনের নড়াইল জেলা প্রতিনিধি শরিফুল ইসলাম বাবলুর ভওয়াখালীস্থ বাসায় পুলিশের অভিযান অত্যন্ত দুঃখজনক ও নিন্দনীয়। এ ধরণের ঘটনা গণতান্ত্রিক দেশে স্বাধীন সাংবাদিকতার অন্তরায়। এ ঘটনার সুষ্ঠু সমাধান না হওয়া পর্যন্ত পুলিশের সব ধরণের নিউজ বয়কট করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। তবে পুলিশের দুর্নীতি ও অনিয়মের নিউজ প্রকাশ করা হবে। নড়াইল জেলা থেকে পুলিশ সুপারকে প্রত্যাহারেরও দাবি জানান সাংবাদিকরা।  

সাংবাদিক শরিফুল ইসলাম বাবলু বলেন, ‘নড়াইলে পুলিশের হয়রানির প্রতিবাদে ইজিবাইক চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে শ্রমিকরা’-এই শিরোনামে গত ২২ সেপ্টেম্বর নড়াইল নিউজ ২৪.কম অনলাইনে সংবাদ প্রকাশিত হয়। এরপর ওইদিন রাত সাড়ে ৯টার দিকে সদর থানার ওসি (অপারেশন) তুষার কুমার মন্ডল আমাকে (বাবলু) ফোনে বলেন, পুলিশ সুপার স্যার অফিসে আপনাকে (বাবলু) দেখা করতে বলেছেন। তখন আমি পুলিশ সুপারকে ফোন করলে তিনি বলেন, আপনাকে তো ধরতে লোক পাঠিয়েছি। আপনার এত বড় সাহস হল কি করে, পুলিশের বিরুদ্ধে নিউজ করেন। এখনই আমার সাথে এসে দেখা করেন।

সাংবাদিক বাবলু বিষয়টি নড়াইল প্রেসক্লাবের সভাপতি এনামুল কবীর টুকুসহ অন্য সহকর্মীদের জানান।

নড়াইল প্রেসক্লাবের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এনামুল কবীর টুকু বলেন, পুলিশ সুপার আমার সাথেও খারাপ আচরণ করেছেন। একজন সাংবাদিক ও বীরমুক্তিযোদ্ধার সাথে কিভাবে আচরণ করতে হয়, তা তিনি ভুলে গেছেন। এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার না হওয়া পর্যন্ত পুলিশের সব ধরণের নিউজ বয়কট করা হবে। তবে পুলিশের দুর্নীতি ও অনিয়মের নিউজ প্রকাশ করা হবে। এছাড়া একই দাবিতে শনিবার লোহাগড়া উপজেলায় এবং রবিবার কালিয়ায় মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হবে। পাশাপাশি সারাদেশে প্রতিবাদ কর্মসূচি দেয়ার ব্যাপারে সাংবাদিকদের সাথে যোগাযোগ করা হবে।  

অভিযোগের ব্যাপারে পুলিশ সুপার প্রবীর কুমার রায় পিপিএম (বার) বলেন, সংশ্লিষ্ট সাংবাদিক ইজিবাইক সংক্রান্ত খবরে মিথ্যা কথা লিখেছেন। আর আমি সাংবাদিকের বাড়িতে কোন পুলিশ পাঠাইনি। আমার অফিসে আসতে বলেছিলাম, তিনি আসেননি।

প্রধান সম্পাদক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ | প্রকাশক: নাহিদা আকতার জাহেদী

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Design & Developed By Root Soft Bangladesh