মাদক পাচারের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন আরিয়ান খান

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশ: ১৪ অক্টোবর ২০২১, ১২:৪৩ পিএম

আরিয়ান খান

আরিয়ান খান

নিষিদ্ধ মাদক পাচার অর্থাৎ কেনা ও তা অন্যকে বিক্রি করার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতেন বলিউড অভিনেতা শাহরুখ খানের ছেলে আরিয়ান খান। 

আজ বৃহস্পতিবার (১৪ অক্টোবর) মুম্বাইয়ের এক আদালতে এমনই দাবি করেছে নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো (এনসিবি)। আজ দুপুরে ফের আরিয়ানের জামিনের শুনানি হবে আদালতে।

এনসিবির যুক্তি, ২৩ বছরের এই তারকাসন্তানের হোয়াটসঅ্যাপ বার্তা তদন্ত করে জানা গেছে, তিনি আন্তর্জাতিক মাদকচক্রের সঙ্গে যুক্ত এক ব্যক্তির সঙ্গে যোগাযোগ রাখতেন। তার কাছ থেকে নিষিদ্ধ মাদক সংগ্রহ করতেন। আর যাদের গ্রেফতার করা হয়েছে, তারা একে অপরের সঙ্গে যুক্ত। অপর অভিযুক্ত আরবাজ মার্চেন্টের কাছ থেকে আরিয়ান নাকি প্রায়শই মাদক কিনতেন।

এনসিবির আইনজীবী অনিল সিংহ দাবি করেন, প্রমোদতরীর সেই পার্টিতে আরিয়ান মাদক চেয়ে পাঠিয়েছিলেন। কিন্তু অনিলের এই দাবি পুরোপুরি নাকচ করে দিয়েছেন শাহরুখের নিযুক্ত করা আইনজীবী অমিত দেশাই।

তিনি গতকাল বুধবার (১৩ অক্টোবর) আদালতকে বলেছেন, আরিয়ান সেই প্রমোদতরীতে উপস্থিত ছিলেন না। তার কাছে মাদক কেনার জন্য নগদ টাকাও ছিল না।

তিনি আরও বলেন, আরিয়ানের বিরুদ্ধে মাদক নেয়ার যে মামলা করা হয়েছে, তা ভিত্তিহীন। এনসিবির কর্মকর্তারা যখন প্রমোদতরীতে তল্লাশি চালিয়েছিলেন, তখনও আরিয়ান তাতে ওঠেননি। আরিয়ানের কাছ থেকে কোনও মাদক পাওয়া যায়নি।

পাল্টা যুক্তি দিয়ে এনসিবি জানায়, বন্ধু আরবাজ শেঠ মার্চেন্টের থেকে নিষিদ্ধ মাদক নেয়ার পরিকল্পনার কথা স্বীকার করেছেন আরিয়ান নিজেই। অমিত এই দাবি নাকচ করে জানান, জোর করে আরিয়ানকে দিয়ে এ কথা বলিয়ে নেয়া হয়েছে। 

গত ২ অক্টোবর মুম্বাই থেকে গোয়াগামী একটি প্রমোদতরী থেকে আটক করা হয় আরিয়ানসহ কয়েকজনকে। ৩ অক্টোবর গ্রেফতার করা হয় আরিয়ানকে। পরোয়ানায় লেখা হয়, তার কাছ থেকে ১৩ গ্রাম কোকেন, ২১ গ্রাম চরস, ২২টি এমডিএমএ বড়ি ও নগদ এক লাখ ৩৩ হাজার রুপি উদ্ধার হয়েছে। -আনন্দবাজার পত্রিকা

প্রধান সম্পাদক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ | প্রকাশক: নাহিদা আকতার জাহেদী

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Design & Developed By Root Soft Bangladesh