‘নতুন শিক্ষাক্রমে জেএসসি পরীক্ষা থাকছে না’

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশ: ১৪ নভেম্বর ২০২১, ১২:৫৫ পিএম | আপডেট: ১৪ নভেম্বর ২০২১, ০১:৫১ পিএম

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। ফাইল ছবি

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। ফাইল ছবি

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, নতুন শিক্ষাক্রম চালু হলে শিক্ষাব্যবস্থা সে অনুযায়ী চলবে। নতুন কারিকুলামে জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা থাকার কথা নয়। তখন ভিন্নভাবে মূল্যায়ন করা হবে।

তিনি বলেন, মূল্যায়ন হবে কিন্তু সেটি ভিন্ন পদ্ধতিতে হবে, নতুন কারিকুলাম অনুযায়ী হবে। আমাদের ধারাবাহিক মূল্যায়নের বিষয়টা সেখানে থাকবে।

এসএসসি পরীক্ষা শুরুর দিন আজ রবিবার (১৪ নভেম্বর) সকালে মতিঝিল বয়েজ স্কুল কেন্দ্রে পরিদর্শনে গিয়ে সাংদিকদের প্রশ্নে একথা জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী।

নতুন কারিকুলামে জেএসসি পরীক্ষা হবে কিনা- প্রশ্নে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, নতুন কারিকুলাম হলে জেএসসি থাকার কথা নয়। তখন ভিন্নভাবে মূল্যায়ন করা হবে। আগামী বছর থেকে নতুন কারকুলাম চালু করার কথা রয়েছে, যা পূর্ণাঙ্গ বাস্তবায়ন হবে ২০২৩ সালের মধ্যে।

তিনি বলেন, সারা বিশ্বে নানা ধরনের মূল্যায়ন পদ্ধতি রয়েছে। একটা লম্বা পরীক্ষা নিয়ে মেধা যাচাই হয়ে যায় সেটা কিন্তু নয়। আমাদের শিক্ষার্থী যারা এখন পরীক্ষা দিচ্ছে তারা এর আগে অ্যাসাইনমেন্ট করেছে, নানা কিছু করেছে। তারা কতটা শিখতে পারল এই প্রতিকূল পরিবেশের মধ্যে সেটাই বড় বিষয়। 

তিনি আরও বলেন, সব সময় একটা পরীক্ষা দিয়েই তার সমস্ত মেধা যাচাই করে ফেলতে পারবো তা কিন্তু নয়। দেখা গেল, পরীক্ষার সময় একজন শিক্ষার্থী অসুস্থ থাকলো, অংশই নিতে পারলো না বা পরীক্ষা খুব খারাপ হয়ে গেল। তার মানে তো এই নয় সে মেধাবী না। সে কারণে আমাদের নতুন পাঠ্যক্রমে সারা বছর ধরে সে কেমন পারফর্ম করছে সেটাকে আমরা বিবেচনায় নিচ্ছি। 

প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা নেওয়ার জন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয় বোর্ড গঠন করতে চাচ্ছে, যা নতুন পাঠ্যক্রমের সঙ্গে সাংঘর্ষিক। এ বিষয়ে এক প্রশ্নে তিনি বলেন, এ বিষয়ে নিয়ে আমরা উভয় মন্ত্রণালয় বসে কথা বলব। তার পরে সিদ্ধান্ত জানানো হবে।

পরীক্ষার আগে গুজব ছড়ানো হয়েছিল ‘টিকা ছাড়া পরীক্ষা দেওয়া যাবে না। ’ এ বিষয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আমরা সর্বোচ্চ চেষ্টা করবো টিকা দেওয়ার। কিন্তু তারপরও নানান প্রতিকূলতা আছে। টিকা ছাড়া পরীক্ষা দেওয়া যাবে না—এটা সঠিক নয়। যারা সুস্থ থাকবে সবাই পরীক্ষা দিতে পারবে। টিকা ছাড়াও পরীক্ষায় অংশ নেওয়া যাবে।

পরিদর্শনকালে শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী, ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান নেহাল আহমেদসহ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান সম্পাদক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ | প্রকাশক: নাহিদা আকতার জাহেদী

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Design & Developed By Root Soft Bangladesh