আফ্রিকা থেকে প্রবাসীদের আসা নিরুৎসাহিত করছি : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশ: ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ০২:৫১ পিএম

পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন। ছবি :  ইউএনবি

পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন। ছবি : ইউএনবি

জরুরি প্রয়োজন না হলে আফ্রিকার দেশগুলো থেকে প্রবাসী বাংলাদেশিদের দেশে আসতে নিরুৎসাহিত করেছে সরকার।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন এ আহ্বান জানিয়ে বলেন, যেকোনও জরুরি পরিস্থিতিতে তারা বাংলাদেশে আসতে পারেন, তবে আমরা তাদের পরামর্শ দিচ্ছি জরুরি প্রয়োজন না থাকলে দেশে আসা কয়েকদিন পিছিয়ে দিতে।

তিনি বলেন, জরুরি পরিস্থিতিতে দেশে আসলে আফ্রিকান অঞ্চলের করোনাভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্টের জন্য সরকারি পদক্ষেপের অংশ হিসেবে ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে।

আগামী ৪-৫ ডিসেম্বর ঢাকায় অনুষ্ঠেয় বিশ্ব শান্তি সম্মেলন উপলক্ষ্যে আজ বুধবার (১ ডিসেম্বর) এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

তিনি বলেন, দক্ষিণ আফ্রিকায় করোনার নতুন ধরন ওমিক্রন শনাক্ত হওয়ার পর গত এক মাসে ওই দেশ থেকে ২৪০ প্রবাসী দেশে ফিরেছেন। তাদের চিহ্নিত করার চেষ্টা চলছে। 

তিনি আরও বলেন, প্রবাসী বাংলাদেশিদের দেশে আসা নিরুৎসাহিত করতে দক্ষিণ আফ্রিকা ও প্রতিবেশি দেশগুলোর মিশনগুলোতে চিঠি পাঠানো হয়েছে। করোনার এই নতুন ভ্যারিয়েন্ট রোধে সরকার সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিচ্ছে।

এসময় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম ও পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন বক্তব্য দেন। রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ভার্চুয়ালি বিশ্ব শান্তি সম্মেলনের উদ্বোধন করবেন এবং সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

ওমিক্রন নিয়ে উদ্বেগের মধ্যে গতকাল মঙ্গলবার (৩০ নভেম্বর) স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে এক সভার পর স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক জানান, দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে গত এক মাসে ২৪০ জন বাংলাদেশে এসেছেন, তবে তাদের অধিকাংশের খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। তাদের কন্ট্রাক্ট ট্রেসিং করার চেষ্টা আমরা করছি। কিন্তু আফসোসের বিষয়, তারা সবাই তাদের মোবাইল ফোন বন্ধ করে রেখেছে। ঠিকানাও ভুল দিয়েছে।

প্রধান সম্পাদক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ | প্রকাশক: নাহিদা আকতার জাহেদী

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Design & Developed By Root Soft Bangladesh