মেসির গোলে পিএসজির রেকর্ড দশম শিরোপা

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশ: ২৪ এপ্রিল ২০২২, ১০:০২ এএম

গোলের পর মেসিকে সতীর্থদের অভিনন্দন। ছবি : রয়টার্স

গোলের পর মেসিকে সতীর্থদের অভিনন্দন। ছবি : রয়টার্স

ড্র করলেই লিগ ওয়ানের শিরোপা আবার ঘরে ফিরবে, এমন সমীকরণ নিয়েই লঁসের বিপক্ষে খেলতে নেমেছিল পিএসজি। সমর্থকেরাও এসেছিলেন উৎসবের প্রস্তুতি নিয়েই। আর লিওনেল মেসির এক দুর্দান্ত গোলের পর মনে হচ্ছিল, জয় দিয়েই শিরোপা-উৎসবটা রাঙাবে পিএসজি। শেষ পর্যন্ত ম্যাচ জেতা হয়নি মেসি-নেইমারদের, লঁসের সাথে ১-১ ড্র নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হলো। 

তবে ঘরে ফিরেছে গত মৌসুমে লিলের কাছে হারিয়ে ফেলা লিগ ওয়ানের ট্রফিটা। শেষ বাঁশির পর তাই সাথে সাথেই স্টেডিয়ামে আলোর ঝর্ণা ছুটে।

এ নিয়ে দশমবার ফরাসি লিগের চ্যাম্পিয়ন হলো পিএসজি। সবচেয়ে বেশিবার ফ্রান্সের চ্যাম্পিয়ন হওয়ার রেকর্ডে এখন সেঁত এতিয়েনের সাথে পিএসজিও অংশীদার।

দ্বিতীয়ার্ধের বেশিরভাগ সময় একজন কম নিয়ে খেলা লঁসের বিপক্ষে ঘরের মাঠে গতকাল শনিবার (২৩ এপ্রিল) রাতে ১-১ গোলে ড্র করে পিএসজি।

ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে গিয়ে ৬৮ মিনিটের মাথায় গিয়ে দলকে এগিয়ে দেন মেসি। নেইমারের কাছ থেকে বল পেয়ে ডি-বক্সের বাইরে থেকেই বাঁকানো শটে লেন্সের গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন এ ফুটবলার। লিগে মেসির এটি চতুর্থ গোল।

এই গোলে জয় প্রায় নিশ্চিতই হয়ে গিয়েছিল পিএসজির। কিন্তু নির্ধারিত সময়ের ২ মিনিট বাকি থাকতে বাঁধ সাধেন লঁসের বদলি হিসেবে নামা স্ট্রাইকার কোঁহতাঁ জঁ। তার ৮৮ মিনিটের গোলে ড্র হয় ম্যাচ। তবে শিরোপা ঠিকই জিতে নেয় পিএসজি।

লিগের ৩৪ ম্যাচ শেষে ২৪ জয় ও ৬ ড্রয়ে ৭৮ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষস্থান চূড়ান্ত নিশ্চিত করে ফেলেছে পিএসজি। দুইয়ে থাকা মার্শেইর সংগ্রহ ৩৩ ম্যাচে ৬২ পয়েন্ট। তারা বাকি সব ম্যাচ জিতলেও ৭৭ পয়েন্টের বেশি পাবে না।

কোচিং ক্যারিয়ারে এই প্রথম কোনো লিগ শিরোপা জিতলেন মাওরিসিও পচেত্তিনো। ২০২১ সালের জানুয়ারিতে টমাস টুখেলের জায়গায় পিএসজির দায়িত্ব নিয়ে প্রথম মৌসুমে ফরাসি কাপ ও ফরাসি সুপার কাপ জিতেছিলেন এই আর্জেন্টাইন।

ক্লাব ক্যারিয়ারে মেসি জিতলেন ৩৬তম শিরোপা। ইউরোপের শীর্ষ পাঁচ লিগের ক্লাবগুলির মধ্যে সবচেয়ে বেশি শিরোপা জয়ের রেকর্ডে দানি আলভেসের পাশে বসলেন সাবেক বার্সেলোনা ফরোয়ার্ড।

প্রধান সম্পাদক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ | প্রকাশক: নাহিদা আকতার জাহেদী

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Design & Developed By Root Soft Bangladesh