জম্মু-কাশ্মীরের মানুষের উদ্দেশে ভাষণ দিলেন মোদী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশ: ২৪ এপ্রিল ২০২২, ০৮:৩৯ পিএম

ছবি: দ্য হিন্দুস্তান টাইমস

ছবি: দ্য হিন্দুস্তান টাইমস

পঞ্চায়েতি রাজ দিবস উপলক্ষে জম্মু ও কাশ্মীরের সাম্বা জেলায় সফরে গেলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ৩৭০ ধারা প্রত্যাহারের পর সেখানে এটাই তার প্রথম সফর। আজ রবিবার (২৪ এপ্রিল) তিনি এ সফরে যান।

এই সফরে এসে মোদী তার সরকারের সাফল্যের খতিয়ান তুলে ধরে বলেন, রাজ্যটিতে পিছিয়ে পড়া মানুষদের সহায়তা দেওয়া হচ্ছে, ন্যায়বিচার ও উন্নয়ন পাচ্ছেন তারা। পঞ্চায়েতি ব্যবস্থা চালু করে এখানকার মানুষরা নিজেরাই নিজেদের ব্যবস্থা পরিচালনা করছেন বলেও জানান তিনি।

নরেন্দ্র মোদী বলেন, আমি জম্মু ও কাশ্মীরে নতুন না। এখানকার মানুষও আমার কাছে নতুন নয়। জম্মু ও কাশ্মীরের জন্য ২০ হাজার কোটি টাকার নতুন প্রকল্পের সূচনা করেন তিনি।

মোদী বলেন, এই প্রকল্পগুলো অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ও এটি উন্নয়নের গতি বৃদ্ধি করতে সাহায্য করবে। জম্মু ও কাশ্মীরে তৃণমূল স্তরে গণতন্ত্র পৌঁছেছে ও আমি এখান থেকে সমগ্র জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দিচ্ছি। ভারতে যখন পঞ্চায়েতি রাজ ব্যবস্থা চালু হয়, তখন প্রচুর ঢোল বেজেছিল, কিন্তু জম্মু ও কাশ্মীরে এই ব্যবস্থা কার্যকর হয়নি। এতদিন জম্মু ও কাশ্মীরের জনগণ তা থেকে বঞ্চিত ছিল বলেও জানান তিনি।

কাশ্মীরের জনগণের উদ্দেশ্য মোদী আরো বলেন, ‘আপনারা আমাকে দিল্লিতে সেবা করার সুযোগ দিয়েছেন ও জম্মু-কাশ্মীরে পঞ্চায়েত ব্যবস্থা চালু হয়েছে। পঞ্চায়েতগুলোতে তিরিশ হাজার প্রতিনিধি নির্বাচিত হয়েছেন। তারা জম্মু ও কাশ্মীরের ব্যবস্থা পরিচালনা করছেন।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী বলেন, জম্মু ও কাশ্মীর গোটা দেশের সামনে একটি নতুন উদাহরণ তুলে ধরছে। তিনি বলেন, আগে (৩৭০ ধারা প্রত্যাহারের আগে) কেন্দ্রের প্রায় ১৭৫টি আইন এখানে প্রযোজ্য ছিল না, তবে আমরা জম্মু ও কাশ্মীরকে ক্ষমতায়ন করতে সেই আইনগুলো প্রয়োগ করেছি।

প্রধান সম্পাদক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ | প্রকাশক: নাহিদা আকতার জাহেদী

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Design & Developed By Root Soft Bangladesh