ডেল্টা প্ল্যান বাস্তবায়নে এডিবির সহযোগিতা চাইলেন প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশ: ০৯ মে ২০২২, ০৬:১৮ পিএম | আপডেট: ১০ মে ২০২২, ০৮:৫৬ এএম

সোমবার সকালে গণভবনে এডিবির ভাইস প্রেসিডেন্ট শি জিন চ্যানের সাথে সৌজন্য সাক্ষাতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছবি : সংগৃহীত

সোমবার সকালে গণভবনে এডিবির ভাইস প্রেসিডেন্ট শি জিন চ্যানের সাথে সৌজন্য সাক্ষাতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছবি : সংগৃহীত

ডেল্টা প্ল্যান-২১০০ বাস্তবায়নে এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকের (এডিবি) সহযোগিতা চেয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সোমবার (৯ মে) সকালে গণভবনে এডিবি’র ভাইস প্রেসিডেন্ট শিজিন চ্যানের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ শেষে এ কথা বলেন তিনি।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী বলেন, এই ডেল্টা প্ল্যান বাংলাদেশের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এছাড়া আঞ্চলিক সহযোগিতা বাড়াতে বিশেষ করে কানেক্টিভিটি, বাণিজ্য সুবিধা এবং জ্বালানি ক্ষেত্রে সহযোগিতা বাড়াতেও এডিবির সহায়তা প্রয়োজন বলে জানান তিনি।

এ সাক্ষাতে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, প্রায় দুই বছর পর দেশের মানুষ মুক্তভাবে ঈদ উদযাপন করেছে। করোনা মহামারির সময় সহায়তার জন্য এডিবি’র প্রশংসা করেন প্রধানমন্ত্রী।

এসময় স্বল্পোন্নত দেশ হতে উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত হওয়ার কথা উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, এই উত্তরণকাল মোকাবিলায় সরকার বিভিন্ন কর্মসূচি নিয়েছে।

বাংলাদেশের শতভাগ মানুষকে বিদ্যুৎ সুবিধার আওতায় আনা এবং ভূমিহীন ও গৃহহীনদের অধিকতর ভালো জীবন নিশ্চিত করতে আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের আওতায় জমিসহ ঘর দেয়ার কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‌তাদের জীবনমান উন্নত হয়েছে।

এডিবি'র ভাইস প্রেসিডেন্ট রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে বিশ্বে খাদ্য অভাবের আশংকা প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, বাংলাদেশ এ কঠিন সময়ে অর্থনীতির চাকা সচল রাখতে সক্ষম হয়েছে এবং ৭ শতাংশ জিডিপি অর্জন করবে বলেও তিনি আশা প্রকাশ করেন।

তিনি বলেন, এডিবি সবসময় বাংলাদেশের পাশে থাকবে এবং গ্রাম ও নগর উন্নয়নে সহযোগিতা করবে।

স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণ প্রসঙ্গে এডিবি’র ভাইস প্রেসিডেন্ট বলেন, স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণের এই সময়টা সাধারণত ক্রিটিক্যাল। বাংলাদেশ সেক্ষেত্রে ভালো করছে।

কৃষি ক্ষেত্রে বাংলাদেশের অগ্রগতির প্রশংসা করে শি জিন চ্যান বলেন, কৃষি ক্ষেত্রে বাংলাদেশ ব্যাপক উন্নতি করেছে।

বাংলাদেশে ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এই অর্থনৈতিক অঞ্চলগুলো অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক বাজারের চাহিদা পূরণ করবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন অ্যাম্বাসেডর অ্যাট লার্জ মোহাম্মদ জিয়াউদ্দিন, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ড. আহমদ কায়কাউস, অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) সচিব ফাতিমা ইয়াসমিন, এডিবির ডেপুটি ডিরেক্টর জেনারেল (সাউথ এশিয়ান ডিপার্টমেন্ট) মনমোহন প্রকাশ এবং বাংলাদেশে এডিবির কান্ট্রি ডিরেক্টর এডিমন গিনটিং প্রমুখ।

প্রধান সম্পাদক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ | প্রকাশক: নাহিদা আকতার জাহেদী

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Design & Developed By Root Soft Bangladesh