তত্ত্বাবধায়ক সরকারের স্বপ্ন দেখে লাভ নেই: তথ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশ: ১৩ মে ২০২২, ০৩:২৭ পিএম

সম্মেলনে বক্তব্য রাখছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্য ও  সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। ছবি: সংগৃহীত

সম্মেলনে বক্তব্য রাখছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। ছবি: সংগৃহীত

বিএনপির তত্ত্বাবধায়ক সরকারের স্বপ্ন দেখে লাভ নেই বলে মন্তব্য করে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, বিশ্বের সব গণতান্ত্রিক দেশের মতো সংবিধান অনুযায়ী দেশে দলীয় সরকারের পরিচালনায় নির্বাচন কমিশনের অধীনে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। 

আজ শুক্রবার (১৩ মে) রাজধানীর খামারবাড়িতে কৃষি গবেষণা কাউন্সিল মিলনায়তনে কীটতত্ত্ব সমিতির ১১তম দ্বিবার্ষিক সম্মেলনে যোগদানের পূর্বে সাংবাদিকদের তিনি একথা বলেন। 

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. হাছান মাহমুদ বলেন, আন্দোলনের নামে দেশের মধ্যে কোনো ধরনের বিশৃঙ্খলা করলে জনগণকে সাথে নিয়ে বিএনপিকে প্রতিহত করা হবে। 

বিএনপির তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবির বিষয়ে তিনি বলেন, নির্বাচনের সময় ভারত, জাপান, অস্ট্রেলিয়া, ইউরোপ, এমনকি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কোথাও চলতি সরকার পদত্যাগ করে আরেকটি সরকার আসে না। বর্তমান সরকারের পরিচালনায় থাকাকালেই দেশে জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

বিএনপির সরকার পতনের আন্দোলনের বিষয়ে তিনি আরো বলেন, সরকার পতনের আন্দোলনের কথা আমরা গত ১৩ বছর ধরে শুনে আসছি। বিএনপির শক্তি, সামর্থ্য ও হিম্মত আমরা জানি, জনগণও জানে। কিন্তু আন্দোলনের নামে তারা যদি বিশৃঙ্খলা, জ্বালাও-পোড়াও বা আগে যেভাবে মানুষ পোড়ানোর মহোৎসব করেছে, সেটি করার অপচেষ্টা করলে জনগণকে সাথে নিয়ে প্রতিহত করা হবে।

বিএনপির সভা-সমাবেশের অনুমতি মিলছে না- এমন অভিযোগের বিষয়ে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাছান মাহমুদ বলেন, তারা অনেক সময়ই সভা-সমাবেশের অনুমতি নেয় না। আর সভা-সমাবেশে তারা নিজেদের মধ্যেই মারামারি-ভাংচুর করে। এতে জনগণ আতঙ্কিত হয়, আর জনগণ আতঙ্কিত হলে সরকার তো বসে থাকতে পারে না।

কীটতত্ত্ব সমিতির সভাপতি ড. সৈয়দ নূরুল আলমের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. মো. মিজানুর রহমানের পরিচালনায় কৃষি গবেষণা কাউন্সিলের নির্বাহী চেয়ারম্যান ড. শেখ মোহাম্মদ বখতিয়ার অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন। 

সম্মেলনে কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের মুখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. নির্মল কুমার দত্ত ও শেরে বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক মো. আব্দুল লতিফ কারিগরি প্রবন্ধ এবং কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. দেবাশীষ সরকার সূচনা বক্তব্য উপস্থাপন করেন।

প্রধান সম্পাদক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ | প্রকাশক: নাহিদা আকতার জাহেদী

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Design & Developed By Root Soft Bangladesh