ছাত্রীদের নিয়ে ‘অবান্তর’ মন্তব্যে রাবি ছাত্র উপদেষ্টাকে অপসারণের দাবি

রাবি প্রতিনিধি

প্রকাশ: ১৪ মে ২০২২, ০৩:৩৭ পিএম

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ছাত্রীদের নিয়ে ছাত্র উপদেষ্টা মো. তারেক নুরের বক্তব্য প্রত্যাহার, তাকে পদ থেকে অপসারণ ও সান্ধ্য আইন বাতিলের দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন।

আজ শনিবার (১৪ মে) দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্র ফেডারেশনের সদস্য সন্তপ্ত সন্ধির পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব দাবি জানান তারা৷

বিজ্ঞপ্তিতে সংগঠনটির নেতৃবৃন্দ বলেন, আমরা সংবাদ মাধ্যমে দেখলাম, নারী শিক্ষার্থীদের হলে প্রবেশের সময়সীমা কমিয়ে আনার বিষয়ে ছাত্র উপদেষ্টা বলেন, নারী শিক্ষার্থীরা এলোমেলো জীবনযাপন করে। তার এমন মন্তব্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। এই বক্তব্যের মাধ্যমে তিনি নারী শিক্ষার্থীদেরকে হেয় প্রতিপন্ন করেছেন। যা একজন শিক্ষক করতে পারেন না। তাকে বক্তব্যের জন্য ভুল স্বীকার করে বক্তব্য প্রত্যাহার করার দাবি জানাচ্ছি। এমন মন্তব্য করার পর তিনি নৈতিকভাবেই ছাত্র উপদেষ্টার মতো বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি গুরুত্বপূর্ণ পদে বহাল থাকতে পারেন না।

তারা আরো বলেন, সান্ধ্য আইন বিশ্ববিদ্যালয়ের ধারণার সাথে সাংঘর্ষিক। যা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজনৈতিক এবং শিল্প, সাহিত্য, সংস্কৃতি সর্বোপরি উন্মুক্ত জ্ঞান চর্চার পথ বন্ধ করে দেয়। ফলে শিক্ষার্থীদের মুক্ত বিকাশ ও মননে অচিরেই সান্ধ্য আইন বাতিল করতে হবে।

ক্যাম্পাসে আরোপিত ছয়টি ছাত্রী হলের শিক্ষার্থীদের হলে প্রবেশের সময়সীমা কমিয়ে নতুন সময় নির্ধারণের একটি বিজ্ঞপ্তি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে৷ এ বিষয়ে বিস্তারিত জানতে চাইলে, সম্প্রতি ছাত্রীরা অনেক এলোমেলো জীবনযাপন করছে এবং বিভিন্ন জায়গা থেকে তাদের নামে অভিযোগ আসছে বলে মন্তব্য করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র উপদেষ্টা মো. তারেক নুর। এ নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের মধ্যে ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয়৷

প্রধান সম্পাদক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ | প্রকাশক: নাহিদা আকতার জাহেদী

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Design & Developed By Root Soft Bangladesh