প্রেমের ফাঁদে গুরুত্বপূর্ণ নথি পাচার, ভারতীয় সেনা আটক

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশ: ২২ মে ২০২২, ০৬:১২ পিএম

ভারতীয় সেনা জওয়ান ও পাকিস্তানি নারী গুপ্তচর। ছবি- এনডিটিভি

ভারতীয় সেনা জওয়ান ও পাকিস্তানি নারী গুপ্তচর। ছবি- এনডিটিভি

পাকিস্তানি নারী গুপ্তচরের ‘প্রেমের ফাঁদে’ জড়িয়ে গুরুত্বপূর্ণ নথি পাচারের অভিযোগে প্রদীপ কুমার (২৪) নামে এক ভারতীয় সেনা জওয়ানকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, প্রদীপ কুমারের বাড়ি রাজস্থানে। আর যে তরুণীর প্রেমে পড়েছিলেন তিনি মূলত পাকিস্তানের গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই এর সদস্য।

খবরে বলা হয়েছে, যোধপুরের বাসিন্দা প্রদীপের সঙ্গে আলাপ হয় গোয়ালিয়রের বাসিন্দা ছদমের। সে জানায়, সে বেঙ্গালুরুর এক কর্পোরেট ফার্মে চাকরি করে। এর পুরোটাই ছিল মিথ্যা। আইএসআইয়ের এজেন্ট মিথ্যা পরিচয় দিয়ে ফেসবুকে ভাব জমায় প্রদীপের সঙ্গে। সেই ফাঁদে পা দেন তিনি। ক্রমশই গভীর হয় সম্পর্ক। কয়েক মাসের মধ্যে বিষয়টা গড়ায় বিয়ে পর্যন্ত। এরপরই হোয়াটসঅ্যাপে সেনার বেশ কিছু জরুরি নথি ওই তরুণীকে পাঠান তিনি। এখানেই শেষ নয়। প্রদীপের সাহায্যে ফাঁদে ফেলা হয় আরও কয়েকজন সেনাকর্মীকে। কাজে লাগানো হয় ওই তরুণীর আরেক বান্ধবীকেও।

সম্প্রতি পুরো বিষয়টি নজরে আসে পুলিশের। এরপর নড়েচড়ে বসে প্রশাসন। গত ১৮ মে অবশেষে রাজস্থান পুলিশ আটক করে প্রদীপকে। তাকে লাগাতার জেরা করা হয়। শেষ পর্যন্ত গতকাল শনিবার (২১ মে) গ্রেপ্তার করা হয়। এর সঙ্গে আর কে কে যুক্ত রয়েছে তাও খতিয়ে দেখছে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে প্রদীপকে।

উল্লেখ্য, এমন ঘটনা নতুন নয়। এর আগে গত মার্চেই রাজস্থানে এক সেনা জওয়ানকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল একই অভিযোগে। আকাশ মেহরিয়া নামে ওই সেনা জওয়ানের সঙ্গে ফেসবুকে যোগাযোগ করেছিলেন এক পাকিস্তানি মহিলা এজেন্ট। এই ধরনের ঘটনা মাঝেমধ্যেই সামনে আসায় আগেই সতর্ক হয়েছে প্রশাসন। সেনা জওয়ানদের সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারে বেশ কিছু নিয়মও জারি করা হয়েছে।

প্রধান সম্পাদক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ | প্রকাশক: নাহিদা আকতার জাহেদী

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Design & Developed By Root Soft Bangladesh