শিক্ষক হত্যা ও লাঞ্ছিত, বশেমুরবিপ্রবিতে ৯ শিক্ষকের প্রতিবাদ

বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধি

প্রকাশ: ২৮ জুন ২০২২, ০৯:২১ পিএম

সারাদেশে শিক্ষকদের অবমাননা ও লাঞ্ছনার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ। ছবি: বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধি

সারাদেশে শিক্ষকদের অবমাননা ও লাঞ্ছনার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ। ছবি: বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধি

শিক্ষক উৎপল কুমার সরকারকে হত্যা ও স্বপন কুমার বিশ্বাসকে লাঞ্ছিত করার ঘটনাসহ সারাদেশে শিক্ষকদের অবমাননা ও লাঞ্ছনার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়েছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) ৯ শিক্ষক। 

আজ মঙ্গলবার (২৮ জুন) সকাল ১০ টায় শহীদ মিনারে প্ল্যাকার্ড প্রদর্শন করে শিক্ষক অবমাননা ও লাঞ্ছনার তীব্র প্রতিবাদ জানান তারা। 

এসময় উপস্থিত ছিলেন- বাংলা বিভাগের শিক্ষক জাকিয়া সুলতানা মুক্তা, আব্দুর রহমান, শামীমা আক্তার, তন্নী সাহা, ফার্মেসী বিভাগের শামস আরা, ইলেকট্রিকাল এন্ড ইলেকট্রনিকস ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের আরিফুজ্জামান রাজীব, ইংরেজি বিভাগের হাবিবুর রহমান, আইন বিভাগের মানসুরা খানম ও পরিসংখ্যান বিভাগের নিশিত কুমার। 

বাংলা বিভাগের সভাপতি জাকিয়া সুলতানা মুক্তা বলেন, আমরা দেখেছি বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক উন্মেষ রায় এবং সঞ্জয় সরকারকে মৌলবাদী হামলার লক্ষ্যবস্তু করা হয়েছে। নড়াইলে শিক্ষক স্বপন কুমার তার শিক্ষার্থীকে যৌক্তিকভাবে বাঁচাতে চেয়ে প্রশাসনের দ্বারস্থ হওয়ার কারণে জুতার মালা গলায় পড়তে হয়েছে। সাভারে ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ এবং বাধা দেয়ার কারণে শিক্ষক উৎপল সরকারকে দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী ক্রিকেট স্ট্যাম্প দিয়ে পেটাতে পেটাতে মেরেই ফেলেছেন। এর আগে বিজ্ঞান শিক্ষা দেয়ার কারণে শিক্ষক হৃদয় কুন্ডুকে অপমানিত ও জেল জরিমানা হয়েছে। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইমেরিটাস প্রফেসর অরুণ কুমার বসাক স্যারের জায়গা জমি দখল করে নেয়া হচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, শিক্ষক অবমাননা ও লাঞ্ছনার বিরুদ্ধে আমরা সবসময় সোচ্চার ছিলাম এবং থাকবো। কেননা শিক্ষক একটি জাতি গড়ার কারিগর। শিক্ষককে যদি অবমাননা করা হয়, তাহলে এই জাতি কখনোই উঠে দাঁড়াতে পারবে না। এই যে আমাদের পশ্চাৎপদ যাত্রা শুরু হয়েছে, এই যাত্রার বিরুদ্ধে আমাদেরকে সবসময় সোচ্চার থাকতে হবে।

প্রধান সম্পাদক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ | প্রকাশক: নাহিদা আকতার জাহেদী

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Design & Developed By Root Soft Bangladesh