রনির পাশে ডা. জাফরুল্লাহ, আজো স্টেশনে ঢুকতে বাধা

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশ: ২৪ জুলাই ২০২২, ০৬:২১ পিএম

ছবি : ভিডিও থেকে নেওয়া

ছবি : ভিডিও থেকে নেওয়া

রেলওয়ের অব্যবস্থাপনার প্রতিবাদে অবস্থান নেওয়া ঢাবি ছাত্র মহিউদ্দিন রনির পাশে এবার দাঁড়িয়েছেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী। গতকালের মতো আজ রবিবারও (২৪ জুলাই) স্টেশনের ভিতরে ঢুকতে দেওয়া হয়নি আন্দোলনকারীদের।

রবিবার (২৪ জুলাই) বিকেল সোয়া ৫টার দিকে মহিউদ্দিন রনিকে নিয়ে ডা. জাফরুল্লাহ কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন ম্যানেজারের সাথে দেখা করার জন্য হুইল চেয়ারে বসে যেতে চাইলে তাকে বাধা দেওয়া হয়। বন্ধ করে দেওয়া হয় গেট।

স্টেশনে প্রবেশের জন্য বারবার নিরাপত্তা বাহিনীর প্রতি অনুরোধ জানান গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা। পরে তিনি ভেতরে প্রবেশ করতে না দেওয়া পর্যন্ত স্টেশনের বাইরে অবস্থান নিয়ে থাকার ঘোষণা দেন। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ডা. জাফরুল্লাহ গেটের বাইরে অবস্থান করছিলেন।

এসময় সাংবাদিকদের ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, প্রতিটি ভালো কাজের প্রতি আমাদের সমর্থন থাকে। আমি সম্পূর্ণ ব্যক্তিগতভাবে এখানে এসেছি। প্রবেশের অনুমতি না দেওয়া পর্যন্ত এখানেই অবস্থান নিয়ে থাকবো।

এর আগে বিকেল পৌনে ৫টার পর স্টেশনে আসেন ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

আজো বাধার মুখে কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনে ঢুকতে পারেননি রনি ও তার সহযোগীরা। বিকেল ৪টার দিকে স্টেশনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করতে আসেন রনিসহ অন্য শিক্ষার্থীরা। তবে তারা ঢুকতে পারেননি।

তাদের স্টেশনের ভেতরে ঢুকতে না দিতে সব ফটকের সামনে অবস্থান নেন রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনী, পুলিশ ও আনসার সদস্যরা। তারা সবগুলো ফটক বন্ধ করে দেন। তবে টিকিট দেখিয়ে সাধারণ যাত্রীদের স্টেশনের ভেতরে প্রবেশের অনুমতি দিচ্ছে রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনী।

এদিন রনির ৬ দফা দাবির প্রতি সমর্থন জানিয়ে অর্ধশতাধিক শিক্ষার্থীরা আসেন। স্টেশনের সবকটি ফটক বন্ধ থাকায় তারা স্টেশনের বাইরে রিকশাস্ট্যান্ড এলাকায় বসে পড়েন। সেখানে তারা দুর্নীতিবিরোধী স্লোগান দিতে থাকেন।

এর আগে গতকাল (শনিবার) রনি ও তার সমর্থকরা মূল রাস্তা দিয়ে প্রবেশের পথেই অবস্থান নেন। তারা দুর্নীতিবিরোধী স্লোগান দিতে থাকেন। এসময় কয়েকজন বখাটে যুবক কয়েকটি পচা ডিম নিক্ষেপ করে রনি ও তার সমর্থকদের ওপর। এতে রনির গায়ে না লাগলেও দুজনের শরীরে লাগে পচা ডিম। তাদের পোশাকে পড়ে ডিমের ভেতরের অংশ, মুহূর্তেই দুর্গন্ধ ছড়িয়ে পড়ে।

এসময় মহিউদ্দিন রনি জানান, যতদিন দাবি আদায় না হবে, ততদিন তার এই অবস্থান কর্মসূচি চলবে।

গত ৭ জুলাই রেলওয়ের অব্যবস্থাপনা ও যাত্রী হয়রানির প্রতিবাদে হাতে শিকল বাঁধা অবস্থায় কমলাপুর স্টেশনে অবস্থান নেন মহিউদ্দিন রনি।

প্রধান সম্পাদক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ | প্রকাশক: নাহিদা আকতার জাহেদী

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Design & Developed By Root Soft Bangladesh