পশ্চিমাদের বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে রাশিয়ার পথে কিম

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশ: ১১ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ০৬:৫৯ পিএম

উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন। ছবি- সংগৃহীত

উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন। ছবি- সংগৃহীত

চলমান ইউক্রেন যুদ্ধে মস্কোকে অস্ত্র সরবরাহের বিষয়ে আলোচনা করতে উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন রাশিয়ার উদ্দেশে যাত্রা করেছন। দেশটির প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে এ সংক্রান্ত শীর্ষ বৈঠকের কথা রয়েছে তার।

আজ সোমবার (১১ সেপ্টেম্বর) তাকে রাশিয়াগামী নিজস্ব বিশেষ ট্রেনে দেখা গেছে বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম সিএনএন। মার্কিন হুঁশিয়ারি উপেক্ষা করে তার এই রাশিয়া সফরে উদ্বিগ্ন ইউক্রেনসহ পশ্চিমারা।

স্থানীয় সময় মঙ্গলবারের প্রথম দিকে বৈঠকটি হতে পারে বলে ধারণা। রুশ বার্তা সংস্থা ইন্টারফ্যাক্স আগেই জানিয়েছিল, সামনের দিনগুলোতে রাশিয়া সফর করবেন কিম।

কিম জং উনের পূর্বপরিকল্পিত রুশ সফর ঘিরে যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্রদের মধ্যে অস্থিরতা বিরাজ করছে। ওয়াশিংটনের শঙ্কা, কিম জং উন ও পুতিনের বৈঠকে অস্ত্র কেনা-বেচার বিষয়টি উঠে আসতে পারে। এর এতে ইউক্রেন যুদ্ধে মস্কোকে সহযোগিতার জন্য অস্ত্র সরবারাহের জন্য রাজি হতে পারে পিয়ংইয়ং। শুধু মার্কিন শিবিরকে বিপাকে ফেলতেই নয়, তাদের এই সফরের ফলে গোটা ইউরোপ ও পূর্ব এশিয়ায় অস্ত্র প্রতিযোগিতা ফের আশঙ্কাজনকভাবে বেড়ে যেতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। 

জানা গেছে, কিম জং উন পিয়ংইয়ং থেকে ট্রেনে চড়ে ভ্লাদিভস্তোকে যাবেন। রাশিয়ার প্রশান্ত মহাসাগরীয় উপকূলে এই এলাকার অবস্থান। ভ্লাদিভস্তোক রাশিয়ার বন্দরনগরী। মস্কোর অত্যাধুনিক স্যাটেলাইট প্রযুক্তি ও পরমাণু শক্তি চালিত সাবমেরিনের বদলে কিম রাশিয়ায় কামান, গোলা ও ট্যাংকবিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র পাঠাবেন। 

মস্কো ও পিয়ংইয়ংয়ের সামরিক সম্পর্ক নিয়ে এর আগে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে যুক্তরাষ্ট্র। সম্প্রতি রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী সার্গেই শোইগু বলেন, তারা আমাদের প্রতিবেশী। রুশ প্রবাদ হলো, প্রতিবেশী আপনি নির্বাচন করবেন না। তাই ভালো উপায় হলো, প্রতিবেশীর সঙ্গে শান্তিপূর্ণ সম্পর্ক ও আতিথেয়তা বজায় রেখে সহাবস্থান নিশ্চিত করা।

যদি পুতিনের সঙ্গে শীর্ষ বৈঠকটি ঠিকঠাক মতো চলে তবে এটি হবে উত্তর কোরিয়ার নেতার চার বছরের বেশি সময়ের মধ্যে প্রথম আন্তর্জাতিক ভ্রমণ এবং মহামারির পরে প্রথম সফর।

সম্পাদক ও প্রকাশক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Design & Developed By Root Soft Bangladesh