নিখোঁজের ১১ ঘণ্টা পর শিশুর লাশ উদ্ধার

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি

প্রকাশ: ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ১১:৩৯ এএম

প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

ঝিনাইদহে নিখোঁজ হবার ১১ ঘণ্টা পর বাড়ীর পাশের ডোবা থেকে জান্নাতি খাতুন (৬) নামের এক শিশুর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

জান্নাত বাড়ী থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পর নিখোঁজ ছিলো ১১ ঘণ্টা। পরে বাড়ীর পাশের ডোবা থেকে রাত সাড়ে ১০টার দিকে তার লাশ ভাসতে দেখে স্বজনরা। রহস্যজনক ঘটনা শিশুটির লাশ উদ্ধারের পরে তার গায়ে মিলেছে আঘাতের চিহ্ন। পরিবারের অভিযোগ শিশুটিকে ধর্ষণের পর হত্যা করে সন্ধ্যার পর কোনো এক সময়ে সুযোগ বুঝে ফেলে রেখে গেছে নরশিাচরা।

গতকাল সোমবার (১১ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ১০টার দিকে এমনই নির্মম ও নির্দয় ঘটনা ঘটেছে ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার নিত্যানন্দনপুর ইউনিয়নের বাগুটিয়া গ্রামে ।

জান্নাতিকে হারিয়ে পরিবারের সবাই দিশেহারা হয়ে পড়েছে । সে ঐ এলাকার খোকন ভূঁইয়ার মেয়ে।

জানা গেছে, সোমবার বেলা ১২টার দিকে স্কুল থেকে বাড়ি ফিরে রাস্তার পাশে শনপাপড়ি কিনতে গিয়ে নিখোঁজ হয় জান্নাতি। এরপর অনেক খোঁজাখুঁজির পর তাকে না পেয়ে বিকেলে তার বাবা থানায় একটি জিডি করেন।

শিশুটির বাবা খোকন ভূঁইয়া বলেন, সোমবার ১২টার দিকে স্কুল থেকে জান্নাতি বাড়ি ফেরে। পরে বাড়ি ফিরে সে রাস্তার পাশে শনপাপড়ি কিনতে যায়। এরপর সে আর বাড়ি ফিরে আসেনি। বাড়ির পাশের বিভিন্ন পুকুরে সারাদিন তাকে খোঁজাখুঁজির পর পাওয়া না গেলে থানায় একটি জিডি করেন তিনি। পরে হঠাৎ রাত ১০টার দিকে জান্নাতির লাশ পুকুরে ভাসতে দেখেন তারা।

তিনি আরও বলেন, এ পুকুরেও তিনি তার মেয়েকে অনেক খোঁজাখুঁজি করেছিলেন।

খোকন ভূঁইয়া অভিযোগ করে আরও বলেন, মেয়ের ডান হাতে ধারালো অস্ত্রের আঘাত রয়েছে। তাকে ধর্ষণের পর হত্যা করে লুকিয়ে রাখা হয়। এরপর রাতের যেকোনো সময় তাকে ডোবায় ফেলে দেয়া হয়।

শৈলকুপা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুল ইসলাম বলেন, বাগুটিয়া গ্রামের ডোবা থেকে জান্নাতি নামে এক শিশুর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। তার হাতে ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

সম্পাদক ও প্রকাশক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Design & Developed By Root Soft Bangladesh