হয়রানি বন্ধ হলে কর ও ভ্যাট প্রদান বাড়বে: এফবিসিসিআই

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশ: ১০ ডিসেম্বর ২০২৩, ০৮:১৯ পিএম

জাতীয় ভ্যাট দিবস উপলক্ষ্যে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বক্তব্য দিচ্ছেন এফবিসিসিআই সভাপতি মাহবুবুল আলম। ছবি- সংগৃহীত

জাতীয় ভ্যাট দিবস উপলক্ষ্যে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বক্তব্য দিচ্ছেন এফবিসিসিআই সভাপতি মাহবুবুল আলম। ছবি- সংগৃহীত

ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই সভাপতি মাহবুবুল আলম এনবিআরের উদ্দেশে বলেছেন, হয়রানি ছাড়া ব্যবসা করতে চান ব্যবসায়ীরা। হয়রানি বন্ধ করলে ব্যবসায়ীরা সঠিকভাবে কর ও ভ্যাট দেবে। বর্তমানে বাংলাদেশের ব্যবসায়ীরা অনেক এগিয়ে। হয়রানি না করলে ব্যবসায়ীরা জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) সঙ্গে সবসময় আছে।

আজ রবিবার (১০ ডিসেম্বর) আগারগাঁওয়ের রাজস্ব ভবনের মাল্টিপারপাস হলে জাতীয় ভ্যাট দিবস উপলক্ষ্যে আয়োজিত অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

মাহবুবুল আলম বলেন, ব্যবসায়ীদের মধ্যে হয়ত এক থেকে দুই শতাংশ ব্যবসায়ী কর নিয়ে ঝামেলা করে থাকতে পারে। হয়রানি কমিয়ে আনলে, ওটাও থাকবে না।

তিনি বলেন, যারা কর দেন, তাদের ওপর বোঝা না বাড়িয়ে রাজস্ব বাড়াতে করের আওতা বাড়াতে হবে। উপজেলা পর্যায়ে ব্যবসা রয়েছে, সেখানে নজর দিতে হবে।

একই সঙ্গে ভ্যাট আদায়ে ইএফডি মেশিনের ক্ষেত্রে সেক্টর ভিত্তিক সব দোকানে একই সঙ্গে বসানোর দিকে বিশেষ নজর দেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে এনবিআর চেয়ারম্যান আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিম ভারতের উদাহরণ টেনে বলেন, মোট রাজস্বের অধিকাংশই দেয় দেশটির হাতে গোনা গুটিকয়েক বড় ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান। এনিবআরও দেশের রাজস্বে বাড়াতে করের আওতা সম্প্রসারণে কাজ করছে। তবে বাংলাদেশে ব্যক্তি খাত থেকে রাজস্ব আহরণের সংস্কৃতি খুব বেশি দিনের নয়। তাই রাজস্ব বাড়াতে বড় ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানকেই এগিয়ে আসতে হবে।

অনুষ্ঠানে ৯ প্রতিষ্ঠানকে দেশসেরা ভ্যাটদাতার পুরস্কার দেওয়া হয়।

পুরস্কার পাওয়ার তালিকায় উৎপাদন খাতে আছে অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজ, ইউনিমেড ইউনিহেলথ ফার্মাসিউটিক্যালস এবং জেনারেল ফার্মাসিউটিক্যালস। ব্যবসায় শ্রেণিতে রয়েছে গাজীপুরের ওয়ালটন প্লাজা, গুলশানের ইউনিমার্ট ও হ্যামকো করপোরেশন লিমিটেড। আর সেবা শ্রেণিতে ৩ সেরা ভ্যাটদাতা হলো- বিকাশ, তেজগাঁওয়ের ব্র্যাক-আড়ং ও নগদ লিমিটেড।

সম্পাদক ও প্রকাশক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Design & Developed By Root Soft Bangladesh