রামুর বৌদ্ধ বিহারে আগুন

কক্সবাজার প্রতিনিধি

প্রকাশ: ০৬ জানুয়ারি ২০২৪, ০৩:১২ পিএম

আগুনে পুড়ে গেছে বৌদ্ধ বিহারের সিঁড়ি। ছবি: কক্সবাজার প্রতিনিধি

আগুনে পুড়ে গেছে বৌদ্ধ বিহারের সিঁড়ি। ছবি: কক্সবাজার প্রতিনিধি

কক্সবাজারের রামুতে দুষ্কৃতকারীদের দেওয়া আগুনে দেড়শো বছরের পুরনো ‘উসাইচেন বৌদ্ধ বিহার (বড় ক্যাং)’ নামে একটি বৌদ্ধ বিহারের সিঁড়ি পুড়ে গেছে। তবে স্থানীয় লোকজন ও ফায়ার সার্ভিস তাৎক্ষণিক আগুন নিয়ন্ত্রণে আনায় বড় ধরণের ক্ষয়ক্ষতি থেকে রক্ষা পেয়েছে। আগুন দেওয়ার সময় সিসিটিভি ফুটেজে  এক ব্যক্তির অস্তিত্ব দেখা যায়। সেটি নিয়ে কাজ শুরু করেছে পুলিশ।

গতকাল শুক্রবার (৫ জানুয়ারি) গভীর রাতে রামু উপজেলা সদরের চেরাংঘাটা এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে , শুক্রবার রাতে রামু উপজেলা সদরের চেরাংঘাটাস্থ রাখাইন সম্প্রদায়ের দেড়শ বছরের পুরানো কাঠের তৈরি ‘উসাইচেন বৌদ্ধ বিহারের (বড় ক্যাং)’ পুরোহিতসহ অন্যরা প্রতিদিনের মত ঘুমিয়ে পড়েন। একপর্যায়ে রাত ২টার দিকে আকস্মিক আগুন লেগে যায়। এসময় বৌদ্ধ বিহারের ভিতরে অবস্থানকারীরা চিৎকার শুরু করলে এলাকাবাসী এগিয়ে গিয়ে আগুন নেভানোর চেষ্টা চালায়। পরে খবর পেয়ে রামু ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। আগুনে বৌদ্ধ বিহারটির ভিতরের কাঠের তৈরি একটি সিঁড়ি পুড়ে গেছে। তবে তাৎক্ষণিক আগুন নিভিয়ে ফেলতে সক্ষম হওয়ায় বড় ধরণের ক্ষয়ক্ষতি এড়ানো সম্ভব হয়েছে বলে জানা গেছে। 

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রফিকুল ইসলাম। 

তিনি জানান, ঘটনার পরপরই আমাদের টিম সেখানে গিয়ে কাজ শুরু করেছে। পুলিশসহ প্রশাসনের একাধিক  দল ঘটনাস্থলে অবস্থান করছে। শনিবার সকালে পুলিশসহ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। 

রফিকুল বলেন, আগুনের সূত্রপাত কিভাবে হয়েছে তা জানা যায়নি। তাছাড়া এটি নিছক দুর্ঘটনা নাকি নাশকতা তা পুলিশ এখনো নিশ্চিত নয়। রাতে ঘটনাটি শোনার পরপরই পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। বৌদ্ধ বিহারসহ আশপাশের সব সিসিটিভির ফুটেজ সংগ্রহ করে পুলিশ তদন্ত করছে। সিসিটিভি ফুটেজে ওই সময় একজন ব্যক্তিকে অস্পষ্ট দেখা গেছে, আমরা সেটি নিয়ে কাজ করছি। 

সম্পাদক ও প্রকাশক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Design & Developed By Root Soft Bangladesh