টঙ্গীতে বহুতল ভবনে অগ্নিকাণ্ড, ছয়জন দগ্ধ

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশ: ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০১:২০ পিএম

ফায়ার সার্ভিসের ছয়টি ইউনিটের কর্মীরা আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করে। ছবি: সংগৃহীত

ফায়ার সার্ভিসের ছয়টি ইউনিটের কর্মীরা আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করে। ছবি: সংগৃহীত

গাজীপুরে টঙ্গীতে একটি ছয়তলা ভবনে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। পরে ফায়ার সার্ভিসের ছয়টি ইউনিট এসে প্রায় দেড় ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। 

আজ বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) সকাল পৌনে ৬টার দিকে টঙ্গী বাজার এলাকায় মরিয়ম ম্যানশনে এই আগুন লাগে। 

এ সময় আগুন নেভাতে গিয়ে ছয়জন দগ্ধ হয়েছেন। তাদের উদ্ধার করে টঙ্গীর শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা দেয়া হয়। এদের মধ্যে আব্দুর রাজ্জাকের অবস্থা গুরুতর হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। অগ্নিদগ্ধ ছয়জন ওই ভবনের চতুর্থ তলার একাংশে থাকা কয়েকটি কক্ষে ভাড়া থাকতেন। 

স্থানীয়রা জানান, সকালে হঠাৎ ভবনটির চতুর্থ তলায় ধোঁয়ার কুণ্ডলী দেখতে পান তারা। এ সময় তারা আগুন নেভানোর চেষ্টা করেন। এতে ব্যর্থ হলে টঙ্গী ফায়ার সার্ভিসে খবর পাঠানো হয়। ফায়ার সার্ভিসের তিনটি ইউনিটের কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা শুরু করেন। 

টঙ্গী ফায়ার সার্ভিসের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা আবু মোহাম্মদ সাজেদুল কবির জোয়ার্দার বলেন, বুধবার সকালে মরিয়ম ম্যানশন নামের একটি ছয়তলা ভবনের চতুর্থ তলায় থাকা একটি প্লাস্টিকের গুদামে আগুন লাগার খবর পাই। ভবনটির পঞ্চম তলায় থাকা কয়েলের গুদামে আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে টঙ্গী ফায়ার সার্ভিসের বিশেষ একটি ইউনিটসহ মোট তিনটি ইউনিট আগুন নেভানোর চেষ্টা করে। আগুনের তীব্রতা বেড়ে যাওয়ায় উত্তরা ফায়ার সার্ভিসের আরও তিনটি ইউনিটসহ মোট ছয়টি ইউনিটের কর্মীরা আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করেন। আগুন লাগার প্রায় দেড় ঘণ্টা পর ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। আগুনে ক্ষয় ক্ষতির পরিমাণ ও আগুন লাগার কারণ এখনো জানা যায়নি।

টঙ্গীর শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক কাউসার আহমেদ বলেন, ছয়জনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। তাদের মধ্যে একজনের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

সম্পাদক ও প্রকাশক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Design & Developed By Root Soft Bangladesh