স্কুল শিক্ষককে মারধর: ২ পুলিশ কনস্টেবলকে ক্লোজড

নাটোর প্রতিনিধি

প্রকাশ: ০৪ মার্চ ২০২৪, ০৩:৫২ পিএম

নাটোর পুলিশ সুপারের কার্যালয়। ছবি: প্রতিনিধি

নাটোর পুলিশ সুপারের কার্যালয়। ছবি: প্রতিনিধি

নাটোরের বাগাতিপাড়ায় বাদল উদ্দিন নামে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এক শিক্ষককে পিটিয়ে আহত করার ঘটনায় ২ পুলিশ কনস্টেবলকে ক্লোজড করে নাটোর পুলিশ লাইন্সে সংযুক্ত করা হয়েছে।

আজ সোমবার (৪ মার্চ) দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নাটোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাহমুদা শারমীন নেলী। ভুক্তভোগী শিক্ষক বাদল উদ্দিন বাগাতিপাড়া উপজেলার রহিমানপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক।

পুলিশ লাইন্সে সংযুক্ত করা দুই কনস্টেবল হলেন- সজিব হোসেন এবং আসাদুজ্জামান।

এর আগে, গতকাল এই দুই পুলিশ কনস্টেবল ও এক সোর্সের বিরুদ্ধে ওই স্কুল শিক্ষককে হাতকড়া পরিয়ে পেটানোর অভিযোগ উঠে।

এবিষয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাহমুদা শারমীন নেলী বলেন, আমরা বিভিন্ন মাধ্যমে জানতে পেরেছি যে, এক স্কুল শিক্ষকের কাছে মাদক রয়েছে এমন খবর পেয়ে দুই পুলিশ সদস্য ওই শিক্ষককে সার্চ করে। ওই মুহূর্তে শিক্ষককে মেরে আহত করা হয়। খবর পেয়ে রাতেই আমি নাটোর আধুনিক সদর হাসপাতালে গিয়ে আহত শিক্ষকের সাথে কথা বলি এবং প্রাথমিক তথ্য সংগ্রহ করি। এসব তথ্য পুলিশ সুপারকে জানালে রাতেই তিনি দুই পুলিশ কনস্টেবলকে ক্লোজড করেন। 

মাহমুদা শারমীন নেলী আরো বলেন, দায়িত্ব পালনের ক্ষেত্রে আমাদের পেশাদারিত্বের বাইরে যাওয়ার সুযোগ নেই। আইন প্রয়োগের যতটুকু ক্ষেত্র রয়েছে তার বাইরে যাওয়ারও সুযোগ নেই। দুই পুলিশ সদস্য তাদের দায়িত্বের বাইরে গিয়ে যদি কোনো কর্মকাণ্ড করে থাকেন। সে কারণে অবশ্যই তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তদন্তে তারা যাতে কোনো প্রভাব ফেলতে না পারে তাই ক্লোজড করা হয়েছে।

পুলিশ সুপার তারিকুল ইসলাম জানান, কোনো ব্যক্তির দায় প্রতিষ্ঠান নেবে না। এখন পর্যন্ত স্কুল শিক্ষক লিখিত অভিযোগ না করলেও আমরা আমাদের বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করছি।

সম্পাদক ও প্রকাশক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Design & Developed By Root Soft Bangladesh