প্রকাশ্যে ইউপি সদস্যকে পেটালেন চেয়ারম্যান

লালমনিরহাট প্রতিনিধি

প্রকাশ: ২৫ মার্চ ২০২৪, ০৯:৫০ এএম | আপডেট: ২৫ মার্চ ২০২৪, ০৯:৫১ এএম

ইউপি চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন। ছবি: সংগৃহীত

ইউপি চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন। ছবি: সংগৃহীত

প্রকাশ্যে এক ইউপি সদস্যকে পিটিয়েছেন দলগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন ও তার সহযোগীরা। 

শনিবার (২৩ মার্চ) সকালে লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার দলগ্রাম বাজারে এমন ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ওই ইউপি সদস্য।

জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার দলগ্রাম ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডে টিসিবির পণ্য দেয়া হচ্ছিলো, এসময় দলগ্রাম ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন ৮নং ওয়ার্ডের সদস্য ওয়ারেস আলীকে কার্ড বিহীন তার এক কর্মীকে টিসিবির পণ্য দিতে বলেন। এসময় সদস্য ওয়ারেস আলী চেয়ারম্যানকে বলেন আগে কার্ড ধারীদের দিয়ে পরে তাকে দেয়া হবে। এতে চেয়ারম্যান ক্ষিপ্ত হয়ে সদস্যকে গালমন্দসহ যথেষ্ট শ্মশান এবং পরিষদে আসলে দেখে নেয়ার হুমকি দেন। পরে গতকাল শনিবার সকালে ওয়ারেস আলী পরিষদে আসলে প্রকাশ্যে পেটান চেয়ারম্যান তার সহযোগীরা। এমন একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে। ভিডিওতে দেখা যায় ইউপি চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন ও সহযোগীরা ওই সদস্যের গলায় চেপে ধরে তাকে আঘাত করছেন পাশাপাশি তাকে গালাগাল করছেন।

স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে চেয়ারম্যান সেখানে থাকা চেয়ার দিয়ে ওই ইউপি সদস্যকে আঘাত করতে থাকেন এক পর্যায়ে রাগের বসপতি হয়ে সেখানে থাকা কোদাল দিয়ে আঘাত করার চেষ্টা করেন।

এ ব্যাপারে ইউপি সদস্য ওয়ারেস আলী জানান আমি চেয়ারম্যানের কথা মত কার্ড বিহীন তার কর্মীকে মাল না দেয়ায় তিনি আমার সাথে খারাপ আচরণ করেন এবং আমাকে দেখে নেওয়ার হুমকি দেন পরে শনিবার আমি পরিষদে আসলে চেয়ারম্যান ও তার সাঙ্গোপাঙ্গরা আমাকে প্রকাশ্যে মারধোর করে। আমি এ বিষয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছি। বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ডিসি মহোদয়ের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছি। আমি এর সুষ্ঠু বিচার চাই।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, এটি অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা আমি চেয়ারম্যান হিসেবে একজনকে একটি মাল দিতে বলেছি কিন্তু মেম্বার আমার কথা না শুনে আমার সাথে ঝগড়া লিপ্ত হয়েছেন। ওয়ারেস আলীকে মারধরের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন এটি একটি অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটেছে। অন্যান্য মেম্বাররা মিলে সমাধান করা হবে বলেও জানান তিনি। 

 এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জহির ইমাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ বিষয়ে অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সম্পাদক ও প্রকাশক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Design & Developed By Root Soft Bangladesh