ভারতে এমপি আনারের খণ্ডিত লাশ খুঁজতে নৌবাহিনীর দ্বারস্থ সিআইডি

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশ: ০২ জুন ২০২৪, ০২:২৭ পিএম | আপডেট: ০২ জুন ২০২৪, ০৪:১৪ পিএম

 সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনার। ছবি: সংগৃহীত

সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনার। ছবি: সংগৃহীত

ভারতের পশ্চিমবঙ্গে খুন হওয়া সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনারের লাশ এখনও উদ্ধার করা যায়নি। টানা কয়েকদিন ধরে তল্লাশির পর কলকাতার সঞ্জীবা গার্ডেন্সের সেপটিক ট্যাংক থেকে মরদেহের কিছু অংশ (টুকরো করা মাংস) উদ্ধার করা হয়েছে। তবে তা এমপি আনারের কিনা তা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। এমন অবস্থায় এমপি আনারের মরদেহের খোঁজ পেতে এবার ভারতীয় নৌবাহিনী ও কোস্টগার্ডের সহায়তা নেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু করেছে পশ্চিমবঙ্গ অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)।

আজ রবিবার (২ জুন) এই তথ্য জানিয়েছে কলকাতার একাধিক সংবাদমাধ্যম।

সংবাদমাধ্যমগুলো তাদের প্রতিবেদনে বলছে, খালের নোংরা পানি থেকে বাংলাদেশের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজিমের মরদেহের হাড় এবং মাথার খুলি উদ্ধার করতে এবার ভারতীয় নৌবাহিনী এবং উপকূলরক্ষী বাহিনীর (কোস্টগার্ড) সাহায্য নেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু করেছে পশ্চিমবঙ্গ সিআইডি।

ওই খুনের ঘটনায় গ্রেপ্তার হওয়া কসাই জিহাদ হাওলাদারের দাবি ছিল, আজিমের মরদেহের হাড় এবং মাথার অংশ টুকরো টুকরো করে ভাঙড়ের পোলেরহাট থানা এলাকার কৃষ্ণমাটি এলাকার বাগজোলা খালে ফেলা হয়েছে। সেখানে গত সাত দিন ধরে বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর ডুবুরি নামিয়ে তল্লাশি চালিয়েও কিছু পাওয়া যায়নি।

সিআইডির কর্মকর্তারা বলছেন, ওই খালের পানি নোংরা, ঘোলা এবং ময়লা-মাটিতে ভর্তি। উন্নততর প্রযুক্তি ব্যবহার করলে ওই হাড় বা মাথার খুলির অংশ উদ্ধার হতে পারে। 

সিআইডির এক কর্মকর্তা জানান, ওই উন্নততর প্রযুক্তি রয়েছে নৌবাহিনী এবং উপকূলরক্ষী বাহিনীর কাছে। তাই তাদের ডুবুরি দিয়ে তল্লাশি চালালে এমপি আনারের দেহের ওই অংশ উদ্ধার করা যেতে পারে। এটা ধরে নিয়েই তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করার প্রক্রিয়া শুরু করা হয়েছে। তবে তা ফলপ্রসু হবে কি না তা পরবর্তী সময়ে বোঝা যাবে।

এদিকে সেফটি ট্যাংক থেকে উদ্ধার হওয়া মাংসপিণ্ড এমপি আনারের কিনা, তা জানতে ফরেনসিক পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। মাংসপিণ্ড উদ্ধার হলেও আজিমের দেহের হাড়় কিংবা মাথার অংশ এখনও উদ্ধার করতে পারেনি সিআইডি।

তদন্তকারীরা জানিয়েছেন, আগামী কয়েক দিনের মধ্যে ওই ফরেনসিক রিপোর্ট আসবে। তা পজিটিভ হলে এমপি আনারের মেয়ে কিংবা তার কোনও আত্মীয়ের সঙ্গে ডিএনএ প্রোফাইল ম্যাচিংয়ের জন্য পাঠানো হবে ল্যাবরেটরিতে। প্রায় একইসঙ্গে হাড় এবং মাথার খুলি উদ্ধার করা গেলে তদন্তের ক্ষেত্রে সুবিধা হবে বলে মনে করছেন তদন্তকারীরা।

সম্পাদক ও প্রকাশক: ইলিয়াস উদ্দিন পলাশ

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

Design & Developed By Root Soft Bangladesh