ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং হাসপাতালে

ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং

ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং

ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও দেশটির প্রধান বিরোধী দল কংগ্রেসের প্রবীণ নেতা মনমোহন সিংকে (৮৯) রাজধানী নয়াদিল্লির অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অব মেডিক্যাল সায়েন্সেসে (এআইআইএমএস) ভর্তি করা হয়েছে। বুধবার (১৩ অক্টোবর) স্থানীয় সময় সন্ধ্যা সোয়া ৬টার দিকে তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয় বলে খবর দিয়েছে দেশটির দৈনিক ইন্ডিয়া টুডে।

কংগ্রেস সূত্রের বরাত দিয়ে ইন্ডিয়া টুডে বলেছে, গত দু’দিন ধরে কংগ্রেসের এই নেতার শরীরে মৃদু জ্বর দেখা যাচ্ছে। যে কারণে উন্নত চিকিৎসা সেবার জন্য তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

তিনি এআইআইএমএসের কার্ডিও-নিউরো টাওয়ারে হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক নীতিশ নায়কের তত্ত্বাবধানে আছেন। বর্তমানে তার কয়েকটি মেডিক্যাল টেস্ট চলছে। 

এদিকে, অল ইন্ডিয়া কংগ্রেসের যোগাযোগবিষয়ক ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি প্রণব ঝা টুইটারে বলেছেন, মনমোহন সিংয়ের অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে।

তিনি বলেছেন, সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংয়ের শারীরিক অবস্থা নিয়ে কিছু গুজব ছড়িয়েছে। তিনি স্থিতিশীল আছেন। তার নিয়মিত চিকিৎসা চলছে। যেকোনও ধরনের হালনাগাদ তথ্য আমরা সবাইকে জানিয়ে দেব।

চলতি বছরের এপ্রিলের দিকে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর কংগ্রেসের প্রবীণ এই নেতাকে দিল্লির অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অব মেডিক্যাল সায়েন্সেসে ভর্তি করা হয়। করোনার মৃদু সংক্রমণে ভোগার পর তিনি সুস্থ হয়ে ওঠেন।

বুকে অস্বাভাবিক রক্ত জমাট বেঁধে যাওয়ায় গত বছরের মে মাসে সাবেক এই ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীকে এআইআইএমএসে ভর্তি করা হয়েছিল। সেই সময়ও তিনি চিকিৎসক নীতিশ নায়কের তত্ত্বাবধানে ছিলেন। 

তার আগে, ২০০৯ সালে দিল্লির এআইআইএমএসে মনমোহন সিংয়ের সফল করোনারি বাইপাস সার্জারি সম্পন্ন হয়। মনমোহন সিং ১৯৭১ সালে ভারত সরকারের বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে অর্থনৈতিক উপদেষ্টা হিসেবে প্রথম যোগদান করেন।

পরে তিনি ১৯৯১ থেকে ১৯৯৬ সাল পর্যন্ত ভারতের অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন। ২০১৪ সালে তিনি ভারতের ১৪তম প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন। বর্তমানে তিনি রাজ্যসভার সদস্য।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //