কভিড পরবর্তী রোডম্যাপ প্রণয়ন আইসিটি বিভাগের

করোনাভাইরাস পরবর্তী নতুন পৃথিবীতে নেতৃত্ব দিতে ১৬টি অ্যাকশন পয়েন্ট ও ৯০টি অ্যাকশন এজেন্ডা চিহ্নিত করে একটি রোডম্যাপ প্রণয়ন করেছে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগ।

গতকাল মঙ্গলবার (১০ নভেম্বর) ভার্চুয়াল প্লাটফর্মে কভিড পরবর্তী করণীয় বিষয়ক আন্তঃমন্ত্রণালয় সভায় এ তথ্য জানানো হয়।

সভায় আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক জানান, রোডম্যাপে অংশীদারিত্বের জায়গা আরো সম্প্রসারণ করে সরকার, ইন্ডাস্ট্রি, অ্যাকাডেমিয়া ও সুশীল সমাজকে একত্রিত করে একটি শক্তিশালী ভিত্তির ওপর আত্ম-নির্ভরশীল ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তোলার ওপর গুরুত্বারোপ করেছে।

‘ইলেকশন নয়, জেনারেশন’ এর দিকে দৃষ্টি দিয়েই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সব সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, কভিড পরবর্তী বিশ্বে নেতৃত্ব দিতে আমরা অবশ্যই আত্ম-নির্ভরশীল হলেও আত্মকেন্দ্রিক হবো না। বিশ্বের সাথে সংযোগ বন্ধ করবো না। কভিড-১৯ মহামারি মোকাবেলায় গত আট মাসে ১১ বছরে প্রস্তুতকৃত প্রযুক্তি অবকাঠামো মূল ভূমিকা পালন করেছে। অর্থনীতি, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, বাণিজ্য ও বিচারিক কার্যক্রম চলমান রাখা সম্ভব হয়েছে।

প্রতিমন্ত্রী জানান, রোডম্যাপ অনুযায়ী পরবর্তী পরিস্থিতির জন্য ডেটা প্রাইভেসি ও প্রোটেকশন অ্যান্ড লোকালাইজেশন আইন, স্টার্টআপ পলিসি, দক্ষতা তৈরির ম্যাপিং প্রণয়ন এবং তরুণ ও নারীদের অর্থনীতির মূল চালিকাশক্তিতে অন্তর্ভূক্তির জন্য প্রস্তাব করা করা হবে।

আইসিটি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো সংযুক্ত ছিলেন মন্ত্রিপরষদ বিভাগের সচিব কামাল হোসেন, এটুআই উপদেষ্টা আনির চৌধুরী, হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা বেগম, স্টার্টআপ বাংলাদেশের উপদেষ্টা টিনা জাবিন প্রমুখ। -ইউএনবি

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh