অ্যান্ড্রয়েডে স্মার্টফোনের জন্য নিরাপত্তা সেটিংস

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

আমাদের স্মার্টফোনগুলো এখন কেবল যোগাযোগের মাধ্যম নয়। এটি এখন আমাদের টাকার ওয়ালেট, ফটো অ্যালবাম কিংবা লকারের কাজ করে; যেখানে আমরা গুরুত্বপূর্ণ তথ্য রাখি। তাই এই ডিভাইসের সুরক্ষা নিশ্চিত করাও এখন অপরিহার্য। তবে ফোন সুরক্ষিত রাখার অর্থ এই নয় যে, আপনাকে অগত্যা অর্থ ব্যয় করতে হবে। অ্যান্ড্রয়েডের সর্বশেষ সংস্করণগুলোর বেশিরভাগে এমন কিছু ফিচার যুক্ত করা আছে, যা আপনি সহজেই ব্যবহার করতে পারেন।

স্ক্রিন লক রাখুন

আপনার ফোন সুরক্ষিত করতে স্ক্রিন লক সেটআপ করুন। একটি পিন, প্যাটার্ন বা পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে এটি করতে পারেন। কিছু ডিভাইসে, আঙুলের ছাপ কিংবা নিজের মুখের ছবিও আনলক করার জন্য ব্যবহার করতে পারেন। আপনি যখনই ডিভাইস চালু করবেন বা স্ক্রিনটি অন করবেন, তখনই আপনাকে আপনার ডিভাইসটি আনলক করতে বলা হবে। ফলে কেউ চাইলেই আপনার ডিভাইসে প্রবেশ করতে পারবে না।

স্ক্রিন লক থাকা অবস্থায় নোটিফিকেশন নিয়ন্ত্রণ করুন 

ফোনের স্ক্রিন লক থাকা অবস্থায় কোন কোন অ্যাপের নোটিফিকেশন দেখতে চান, তা আপনি নির্ধারণ করতে পারেন। নির্দিষ্ট কোনো অ্যাপ বা পুরো ফোনের জন্যও এটি করা যায়। পরিবর্তন করতে সেটিংসে যান। এরপর ‘নোটিফিকেশন’। এখান থেকে ‘ম্যানেজ নোটিফিকেশন’। এখানে স্ক্রিন লক অবস্থায় অ্যাপের জন্য নোটিফিকেশনের কোন অংশটুকু দেখতে চান, তা নির্ধারণ করতে পারবেন। ফলে অন্য কারও হাতে ফোন থাকলেও সে নোটিফিকেশন থেকে কোনো তথ্য জানতে পারবে না। 

চালু রাখুন ‘ফাইন্ড মাই ডিভাইস’

গুগলের ‘ফাইন্ড মাই ডিভাইস’ ব্যবহার করে হারিয়ে যাওয়া অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস শনাক্ত করা এবং এটি ফিরে না পাওয়া পর্যন্ত লক করে রাখা যায়। 

সেটআপ করতে

প্রথমে সেটিংস > সিকিউরিটিতে যান। এরপর ‘ফাইন্ড মাই ডিভাইস’ চালু করুন। সুবিধাটি ব্যবহারের সময় আপনার স্মার্টফোন চালু থাকতে হবে, গুগল অ্যাকাউন্টে লগইন করা থাকতে হবে, ইন্টারনেট সংযোগ সচল থাকতে হবে এবং ফাইন্ড মাই ডিভাইস চালু থাকতে হবে। এই ফিচারটি আপনার হারিয়ে যাওয়া ফোনটি খুঁজে বের করতে সহায়তা করার পাশাপাশি দূর থেকে এটি নিয়ন্ত্রণ করার সুযোগ দেবে। 

গুগল প্লে প্রোটেক্ট

গুগল প্লে প্রোটেক্ট ব্যবহারকারীদের তাদের ডিভাইস নিরাপদ রাখতে সহায়তা করে। প্লে স্টোর থেকে কোনো অ্যাপ ডাউনলোড করার আগে প্লে প্রোটেক্ট একটি সুরক্ষা পরীক্ষা চালায়। এর মাধ্যমে ডাউনলোড করা অ্যাপটি ডিভাইসটির জন্য ক্ষতিকারক কি-না, সে সম্পর্কে ব্যবহারকারীদের সতর্ক করে। ডিভাইস থেকে পরিচিত ক্ষতিকারক অ্যাপগুলো অপসারণ করে। গুরুত্বপূর্ণ তথ্য লুকিয়ে বা ভুলভাবে উপস্থাপন করে গুগলের সফ্টওয়্যার নীতি লঙ্ঘন করে এমন অ্যাপ সম্পর্কেও অবহিত করে। অ্যান্ড্রয়েডে সুবিধাটি সাধারণত ডিফল্টভাবে সচল করা থাকে। প্লে প্রোটেক্ট চালু আছে কি-না নিশ্চিত করতে, সেটিংস > সিকিউরিটি > গুগল প্লে প্রোটেক্টে যান।

ক্রোমে ‘সেফ ব্রাউজিং’ ব্যবহার করুন

ক্রোম অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসের ডিফল্ট ব্রাউজার। ব্রাউজারটিতে একটি ‘সেফ ব্রাউজিং’ মোড আছে, যার লক্ষ্য বিপজ্জনক ওয়েবসাইট থেকে ডিভাইসকে রক্ষা করা। চালু করতে ক্রোম খুলুন, তিন-ডট মেনু বোতামটি ট্যাপ করুন এবং সেটিংস নির্বাচন করুন। সিকিউটিতে যান। সেফ ব্রাউজিং নিশ্চিত করে আবার সেটিংসে ফিরে আসুন। একেবারে শুরুতে ‘সিঙ্ক ফর গুগল সার্ভিস’ অপশনে ট্যাপ করে জিমেইল লগইন করে লিঙ্ক চালু করুন।

নিয়মিত গুগল সিকিউরিটি চেকআপ করান

অ্যান্ড্রয়েড ফোনের নিরাপত্তা নির্ভর করে গুগল অ্যাকাউন্টের নিরাপত্তার ওপর। গুগল অ্যাকাউন্ট সুরক্ষিত করার একটি সহজ উপায় হলো নিয়মিত সিকিউরিটি চেকআপ নেওয়া। এই প্রক্রিয়াটির মাধ্যমে কয়েকটি ধাপে অ্যাকাউন্ট সুরক্ষিত করা যায়। ‘আপনার ডিভাইস’, ‘সাম্প্রতিক নিরাপত্তা ঘটনা’, ‘তৃতীয় পক্ষের অ্যাক্সেস’, এবং ‘সাইন-ইন ও পুনরুদ্ধার’ সুবিধাগুলো ব্যবহার করে কোথাও কোনো অসামঞ্জস্যতা থাকলে সহজেই তা চোখে পড়ে এবং ব্যবস্থা নেওয়া যায়। এখানে হলুদ মানে সম্ভাব্য সমস্যা, সবুজ রঙ মানে সবকিছু ঠিক আছে এবং চিন্তার কিছু নেই।

নজরে রাখুন ‘অ্যাপ পারমিশন’

থার্ড-পার্টি অ্যাপগুলো কী কী তথ্যে প্রবেশ করতে পারে, তা পর্যালোচনা করুন। এসব অ্যাপ অ্যাকাউন্টে প্রবেশের ধরন এবং সেইসঙ্গে গুগল পরিষেবাগুলো পর্যালোচনা করতে পারেন। আপনি যদি এমন কোনো অ্যাপ বা পরিষেবাতে প্রবেশাধিকার দিয়ে থাকেন, যা ভুল করে দিয়েছেন বা এখন আর দিতে চান না বা ব্যবহার করতে চান না, তবে আপনি সেই তথ্যে নির্দিষ্ট অ্যাপের প্রবেশ অপসারণ করতে পারেন। অ্যাপ বা পরিষেবাটি আপনার গুগল অ্যাকাউন্ট থেকে নতুন আর কোনো তথ্যে প্রবেশ করতে সক্ষম হবে না। তবে ইতিমধ্যে তাদের কাছে থাকা ডেটা মুছে ফেলতে আপনাকে অনুরোধ পাঠাতে হবে। 

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //