নতুন ফোন কেনার পর

নতুন ফোন কেনার পর করণীয় বিষয়গুলোর দিকে খেয়াল না দিয়ে আমরা অনেকেই সেটি ব্যবহারের জন্য উৎসুক হয়ে পড়ি। এর কারণে অনেক সময় অতীব প্রয়োজনীয় অনেক সেটিংসের কথা আমাদের মনে থাকে না।

ডিভাইসের খুঁটিনাটি দেখে নিন : প্রথমেই দেখে নিন আপনার ডিভাইসটির সঙ্গে প্রয়োজনীয় সব যন্ত্রাংশ সরবরাহ করা হয়েছে কি-না। সাধারণত হেডফোন, চার্জার, ওয়ারেন্টি কার্ড ইত্যাদি প্রয়োজনীয় জিনিস থাকে। মোবাইল সংক্রান্ত সকল কাগজ সযত্নে সংরক্ষণ করুন, পরে কখনো প্রয়োজন হতে পারে। একই সঙ্গে মোবাইলটির আইএমইআই নম্বরটি জেনে নিয়ে তা সংরক্ষণ করুন। মোবাইল হারিয়ে বা চুরি গেলে সেটা ফিরে পাওয়ার একমাত্র উপায় এই আইএমইআই নম্বর। 

কভার এবং স্ক্রিন প্রটেক্টর ব্যবহার করুন : চেষ্টা করুন মোবাইলের সঙ্গে একটি কেস কভার বা স্ক্রিন প্রটেক্টর ব্যবহার করতে। কারণ প্রথম দিকে নতুন ফোন খুব স্পর্শকাতর থাকে। তাই যে কোনো স্ক্র্যাচ বা আঘাত থেকে ফোনকে রক্ষা করতে কেস কভার এবং স্ক্রিন প্রটেক্টর খুবই গুরুত্বপূর্ণ। 

প্রবেশ করুন ই-মেইল অ্যাকাউন্টে : প্রথমবার যখন ফোনটি চালু করবেন, তখন আপনার ই-মেইল অ্যাকাউন্টটি ফোনে যুক্ত করার জন্য বলা হবে। অ্যান্ড্রয়েড ফোনের জন্য গুগল অ্যাকাউন্টে প্রবেশ করা এক প্রকার আবশ্যক। কারণ, গুগল আপনার ফোনটিকে অন্যান্য পরিষেবা গ্রহণের জন্য উপযুক্ত করে তোলে। তাছাড়া আপনাকে ফোনটি পরিচালনার জন্য গুগল প্লে-স্টোর থেকে অ্যাপ ডাউনলোড করতেও এটি প্রয়োজন। পুরনো মোবাইলে আপনার ব্যবহার করা জিমেইল অ্যাকাউন্টে প্রবেশ করলেই সেই মোবাইলে থাকা সমস্ত ডাটা স্বয়ংক্রিয়ভাবে চলে আসবে। 

নিশ্চিত করুন ডিভাইসের নিরাপত্তা : ডিভাইসের নিরাপত্তার ব্যাপারটি সবার আগে নিশ্চিত করতে হবে। সব ফোনেই পিন, প্যাটার্ন লক, ফিঙ্গার প্রিন্ট এবং ফেইস আনলকের মতো অত্যাধুনিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকে। তাই ফোন ব্যবহার শুরু করার আগেই ফোনকে অনাকাক্ষিত হস্তক্ষেপ থেকে রক্ষা করতে এ ধরনের সেটিংগুলো আগেই করে নিতে হবে। 

ডাউনলোড করুন প্রয়োজনীয় অ্যাপ : গুগল প্লে স্টোর থেকে প্রয়োজনীয় অ্যাপগুলো ডাউনলোড করে নিন। বেশিরভাগ ফোনে প্লে স্টোর আগে থেকেই ইন্সটল করা থাকে। না থাকলে ব্রাউজার ব্যবহার করে ডাউনলোড করে নিতে হবে। ইন্সটল করার সময় ‘অটোমেটিক উপডেট’ অপশনটি চালু করে দিন। সেক্ষেত্রে কোনো অ্যাপ্লিকেশনের নতুন সংস্করণ পাওয়া মাত্রই তা আপডেট হয়ে যাবে।

উইজেট ও শর্টকাট : উইজেটকে সহজভাবে বলা যায় মূল অ্যাপ্লিকেশনের ছোট সংস্করণ যেটি আপনার হোমস্ক্রিনে থাকে ও বিভিন্ন বিষয়ে আপডেট দিয়ে থাকে। যেমন আবহাওয়ার উইজেট দেবে আবহাওয়া সংক্রান্ত লাইভ আপডেট। ঘড়ির উইজেট দেবে সময় সংক্রান্ত খবর ইত্যাদি। এসব উইজেট বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই মূল অ্যাপ্লিকেশন ইনস্টলের সঙ্গেই চলে আসে। অ্যাপ্লিকেশন ড্রয়ারের উইজেট অপশন থেকে আপনার ডিভাইসে সহজলভ্য উইজেটগুলো হোমস্ক্রিনে যোগ করতে পারবেন। 

নোটিফিকেশন সেটিংস : অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসের ওপরের দিক থেকে নিচের দিকে সোয়াইপ করলে নেমে আসবে নোটিফিকেশন পুল-ডাউন মেনু। এখানে আপনি বিভিন্ন অ্যাপ্লিকেশনের নোটিফিকেশন, মিস কল, না পড়া এসএমএস ইত্যাদি সব দেখতে পাবেন। কোনো নোটিফিকেশন মুছে ফেলতে চাইলে তা টাচ করে ডান দিকে বা বামদিকে সোয়াইপ করলেই হবে। সেটিংস থেকে স্ক্রিন লক থাকা অবস্থায় কোন কোন নোটিফিকেশন কীভাবে দেখা যাবে সেটা নির্ধারণ করে দিতে পারবেন।

অফলাইনে গুগল ম্যাপস : অচেনা ঠিকানা খুঁজে পেতে গুগল ম্যাপস খুবই কার্যকর। তবে এ জন্য থাকতে হবে ইন্টারনেট সংযোগ; কিন্তু জরুরি সময়ে ইন্টারনেট না থাকলে অফলাইন ফিচারের মাধ্যমে গুগল ম্যাপস ব্যবহার করা যায়।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //