পাংথুমাই- এক অলস দুপুরের গল্প

যদি ভালোবাসেন নীরব কোনো নদী, তার টলটলে শীতল জল, পাহাড়ের নির্জনতা এবং একইসঙ্গে শুনতে ঝরনার গান, সময় নিয়ে উপভোগ করতে, তবে সিলেটের পাংথুমাই আপনার জন্য দারুণ একটা জায়গা হতে পারে, কোনো এক অলস দুপুর কাটানোর জন্য। 

এখানে এসে চুপচাপ বসে থাকতে পারেন সবুজ ঘাসের মিহি গালিচায়, একটু নিচে নেমে ঠাণ্ডা পানিতে ডুবিয়ে রাখতে পারেন পা-দু’খানি, গাছের ছায়ায় বসে তাকিয়ে থাকতে পারেন ছোট্ট পিয়াইন নদীর ঢেউহীন জলের ওপাশের অরণ্য আর ঠায় দাঁড়িয়ে থাকা পাহাড়ের দেয়ালে দেয়ালে। প্রতিটি পাহাড়ের ভাঁজে ভাঁজে দেখতে পারবেন সাদা মেঘের খেলা। হয়তো ঝুপ করে নামতে পারে এক পশলা বৃষ্টি, একটু ভিজিয়ে দিয়ে আমন্ত্রণ জানাতে এক অলস দুপুরে। 

দুই বিশাল পাহাড়ের মাঝেই দুধ সাদা অবিরাম ঝরনাধারা বয়ে চলেছে, গড়িয়ে পড়ছে তার আপন গতিতে, উঁচু থেকে নিচু, আর নিচু থেকে আরও নিচু পাহাড়ের কোলে চড়ে পাথরে পাথরে খেলা করে, পিয়াইন নদীতে। আর যদি হন একটু অলস, সত্যিকারের প্রকৃতিপ্রেমী, ভালোবাসেন যে কোনো ধরনের প্রকৃতি তবে তো কথাই নেই। আপনার জন্য একদম আদর্শ একটা জায়গায় এই পাংথুমাই জলপ্রপাত বা ঝরনাধারা।


এখানে পাবেন এক শান্ত ও স্বচ্ছ, শীতল নদী, স্পর্শ করা যায় এমন দূরত্বে পাবেন অরণ্যের স্বাদ, মেঘ-কুয়াশার আলিঙ্গন, প্রেমে পড়ে যাওয়ার মতো পাহাড়ের সারি আর সবচেয়ে আকর্ষণের, এক পলকেই ভালোবেসে ফেলার মতো সুখের স্রোত, পাংথুমাই। মেঘালয়ের পাহাড় থেকে নেমে আসা এক সুখের কান্নার দেখা! 

আর সবচেয়ে বড় কথা, এখানে যাওয়া-আসার তেমন কোনো ঝামেলা নেই, খুব বেশি খরচের ভাবনা নেই, ঢাকা থেকে একদিনেই গিয়ে ঘুরে আসতে পারবেন এই অবিরাম ঝরে পড়া সুখের ঝরনাধারায়। আর এখানে গেলে একইসঙ্গে চাইলে ঘুরে আসতে পারবেন পানির ভেতরে নরম পাথর বিছানো বিছানাকান্দিতেও! শেষ বিকেলে বা খুব সকালে বাড়তি হিসেবে পাবেন চা বাগানের কোমল সবুজের ছোঁয়া। 

তবে আমি বলব শুধু পাংথুমাইয়ের জন্যই থাকুক না একটি বেলা। সব সময় কি আর ছোটাছুটি করে প্রকৃতি দেখতে ভালো লাগে? সব সময় কি আর ছবি তুলে সুখ পাওয়া যায়? কখনো কখনো শুধু অপার বিস্ময়ে, অপলক তাকিয়ে থেকেই যে অনেক বেশি সুখ আর আনন্দ শুষে নেওয়া যায় নীরব পাহাড়, সবুজ অরণ্য, ঝরে পড়া ঝরনা আর কোমল নদীর কাছ থেকে।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //