থাইল্যান্ডে বিচ্ছিন্নতাবাদীদের হামলায় নিহত ১৫

 ইয়ালা প্রদেশের একটি হাসপাতালে নিহতদের মরদেহ আনা হয়। ছবি: রয়টার্স

ইয়ালা প্রদেশের একটি হাসপাতালে নিহতদের মরদেহ আনা হয়। ছবি: রয়টার্স

থাইল্যান্ডে মুসলিম প্রধান দক্ষিণাঞ্চলে গ্রাম প্রতিরক্ষা স্বেচ্ছাসেবক বাহিনীর একটি তল্লাশি চৌকিতে বিচ্ছিন্নতাবাদী বিদ্রোহীদের হামলায় অন্তত ১৫ জন নিহত ও আরো চারজন আহত হয়েছেন। 

নিরাপত্তা কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, গতকাল মঙ্গলবার গভীর রাতে এ হামলার ঘটনা ঘটে। কর্তৃপক্ষ এই হামলাকে কয়েক বছরের মধ্যে সবচেয়ে বড় বন্দুক হামলা বলে অভিহিত করেছে।

মুসলিম প্রধান দক্ষিণাঞ্চলীয় ইয়ালা প্রদেশে চালানো এ হামলায় হামলাকারীরা বিস্ফোরকও ব্যবহার করেছে। এছাড়া নিরাপত্তা বাহিনী যাতে তাদের পিছু নিতে না পারে সেজন্য হামলাকারীরা রাস্তায় তারকাঁটা ফেলে রেখে যায়।

নিরাপত্তা বাহিনীর আঞ্চলিক মুখপাত্র কর্নেল প্রমোত প্রমইন রয়টার্সকে বলেন, ‘এটা সম্ভবত বিদ্রোহীদের কাজ। এটি সাম্প্রতিক সময়ে হওয়া অন্যতম বড় হামলা।’

তবে এ হামলার দায় কোনো গোষ্ঠী স্বীকার করেনি। 

বৌদ্ধ প্রধান থাইল্যান্ডের দক্ষিণাঞ্চলীয় মালয়-মুসলিম প্রধান প্রদেশ ইয়ালা, পাত্তানি ও নারাথিওয়াতে এক দশক ধরে বিচ্ছিন্নতাবাদী বিদ্রোহ চলছে। এখানে চলা সহিংসতা পর্যবেক্ষণকারী গোষ্ঠী ‘ডিপ সাউথ ওয়াচ’ এর তথ্যানুযায়ী, এই প্রদেশ তিনটিতে ২০০৪ সাল থেকে শুরু হওয়া সহিংসতায় এ পর্যন্ত প্রায় সাত হাজার লোক নিহত হয়েছেন।  

১৯০৯ সালে থাইল্যান্ডের দখলে চলে যাওয়ার আগে ইয়ালা, পাত্তানি ও নারাথিওয়াত স্বাধীন মালয় মুসলিম সালতানাতের অংশ ছিল। এ অঞ্চলের কয়েকটি বিদ্রোহী গোষ্ঠী জানিয়েছে, তারা একটি স্বাধীন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার জন্য লড়াই করছে।


মন্তব্য করুন

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

© 2020 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh