বুড়িগঙ্গায় লঞ্চডুবি

বুড়িগঙ্গায় লঞ্চডুবি: মালিক-চালকের বিরুদ্ধে মামলা

রাজধানীর বুড়িগঙ্গা নদীতে লঞ্চডুবিতে প্রাণহানির ঘটনায় ময়ূর-২ লঞ্চের মালিকসহ ৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে নৌ পুলিশ।

মঙ্গলবার (৩০ জুন) ভোরে অবহেলাজনিত মৃত্যুর অভিযোগে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানায় মামলাটি দায়ের করা হয়।

আসামিরা হলেন- ময়ূর-২ লঞ্চের মালিক মোসাদ্দেক হানিফ সোয়াদ, মাস্টার আবুল বাশার, মাস্টার জাকির হোসেন, স্টাফ শিপন হাওলাদার, শাকিল হোসেন, হৃদয় ও সুকানি নাসির মৃধা। এছাড়া অজ্ঞাতপরিচয় আরো পাঁচ-ছয়জনকে মামলায় আসামি করা হয়েছে।

কেরানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহ জামান বলেন, মামলায় দণ্ডবিধির ২৮০, ৩০৪ (ক), ৩৩৭ ও ৩৪ ধারায় অভিযোগ আনা হয়েছে। চালকসহ সবাই পলাতক থাকায় এখন পর্যন্ত কোনো আসামিকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি। আসামিদের ধরতে অভিযান শুরু করেছে পুলিশ। লঞ্চটিকে জব্দ করে পুলিশের হেফাজতে রাখা হয়েছে।

মর্নিং বার্ড নামের লঞ্চটি মুন্সিগঞ্জের কাঠপট্টি থেকে ঢাকার সদরঘাটে আসছিলো। সোমবার (২৯ জুন) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে সদরঘাটে ঘাটে যাত্রী নামানোর ঠিক আগ মুহূর্তে ময়ূর-২ নামের একটি লঞ্চের ধাক্কায় শ্যামবাজারের কাছে মাঝ নদীতে অর্ধশতাধিক যাত্রী নিয়ে ডুবে যায় লঞ্চটি। এখন পর্যন্ত ৩২ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধার করা ৩২ জনের মরদেহ ইতোমধ্যে স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। উদ্ধার অভিযানে এখনো কাজ করছে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল, নৌবাহিনী ও কোস্টগার্ড।

মন্তব্য করুন

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

© 2020 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

<