করোনা ভ্যাকসিনে এগিয়ে দুটি কোম্পানি

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা এক কোটি ছাড়িয়ে গেছে, এমন পরিস্থিতিতে সবাইকে সচেতন থাকতে সতর্ক করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। যদিও করোনায় বিপর্যস্ত বিশ্ববাসী অপেক্ষায় আছে কবে নাগাদ এ প্রতিষেধক তৈরির সুখবর দিবে বিজ্ঞানীরা সেই আশায়। 

ডব্লিউএইচও বলছে, যত শিগগিরই সম্ভব করোনা ভ্যাকসিন তৈরির চেষ্টা চলছে। তবে ঠিক কবে নাগাদ এই ভ্যাকসিন বাজারে আসবে সে বিষয়ে নিশ্চিত করতে পারেনি সংস্থাটি। 

তবে এক বছরের মধ্যেই আসতে পারে করোনার প্রতিষেধক, আশাবাদী বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (‌হু)‌। প্রতিষেধকের জন্য গবেষণা চলছে দুনিয়া জুড়ে। আশা জুগিয়ে হু শুক্রবার (২৬ জুন) জানিয়েছে, এক বছর বা তারও আগে তৈরি হতে পারে করোনার প্রতিষেধক। তৈরির দৌড়ে এগিয়ে ব্রিটিশ ফার্মাসিটিউক্যাল সংস্থা অ্যাস্ট্রাজেনেকা, খুব বেশি পিছিয়ে নেই মার্কিন সংস্থা মোডেরান।

 হু–র প্রধান বিজ্ঞানী সৌমা স্বামীনাথনের কথায়, নানা পরীক্ষা–নিরীক্ষার পর এগিয়ে অ্যাস্ট্রাজেনেকার করোনাভাইরাস প্রতিষেধক। পরিকল্পনা মাফিক যে সব জায়গায় ওরা ট্রায়াল চালাচ্ছে, তাতে ওরাই বিশ্বে সবার আগে প্রতিষেধক আনতে পারে। সেই সম্ভাবনা রয়েছে। এই মুহূর্তে আমাদের কাছে প্রমাণিত কোনো প্রতিষেধক নেই। চলতি বছরের শেষে একাধিক প্রতিষেধকও এসে যেতে পারে। সে ক্ষেত্রে আগামী বছর শেষ হওয়ার আগে ২০০ কোটি ডোজও তৈরি হবে।

এক বছরের ভেতর প্রতিষেধক তৈরি হবে, এই আশায় হু–র প্রধান টেড্রস অ্যাডানম গ্যাব্রিয়েসাস প্রতিষেধক তৈরি, তার উৎপাদন ও বণ্টনের ক্ষেত্রে সবার সহযোগিতার ওপর জোর দিয়েছেন।

অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকদের তৈরি অ্যাস্ট্রাজেনেকার এই প্রতিষেধকের নাম এজেডডি ১২২২ (‌চ্যাডক্স১ এনসিওভি–১৯)‌। এই প্রতিষেধক এক বছর পর্যন্ত মানব শরীরকে করোনাভাইরাস মুক্ত রাখতে সক্ষম বলে জানিয়েছেন খোদ ব্রিটিশ ওষুধ সংস্থার সিইও। চূড়ান্ত পর্বের পরীক্ষামূলক প্রয়োগ শুরু হয়েছে। 

গত মাসে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের থেকে বলা হয়েছিল, ব্রিটেনে ট্রায়ালের দ্বিতীয় ও তৃতীয় পর্বে ১০ হাজার প্রাপ্তবয়স্কের শরীরে প্রতিষেধক প্রয়োগ করা হবে। তার পর পরীক্ষামূলক প্রয়োগ হবে অন্যান্য দেশে। পরীক্ষামূলক প্রয়োগের ফলাফলের দিকে তাকিয়ে রয়েছে বিশ্ব।‌‌

মন্তব্য করুন

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

© 2020 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

<