সগিরা মোর্শেদ হত্যা: মারুফের জামিন আবেদন নাকচ

রাজধানীর সিদ্ধেশ্বরীতে চাঞ্চল্যকর সগিরা মোর্শেদ হত্যা মামলায় আসামি মারুফ রেজার জামিন আবেদন নাকচ করেছে হাইকোর্ট। 

মঙ্গলবার (১৪ জুলাই) বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেন সেলিমের ভার্চুয়াল বেঞ্চ তার এ জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেন।

আদালতে আসামির পক্ষে শুনানি করেন এডভোকেট আব্দুল মতিন খসরু। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ড. মো. বশির উল্লাহ। এর আগে সোমবার চাঞ্চল্যকর এ হত্যা মামলায় ভার্চুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চে জামিন চেয়ে আবেদন করেন আসামি মারুফ রেজা।

মামলার আসামিরা হলেন- নিহত সগিরা মোর্শেদের ভাসুর ডা. হাসান আলী চৌধুরী, তার স্ত্রী সায়েদাতুল মাহমুদা ওরফে শাহীন, হাসান আলীর শ্যালক আনাস মাহমুদ ওরফে রেজওয়ান ও মারুফ রেজা।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ৩০ বছর পর ঘটনার রহস্য উদঘাটন করে চারজনের বিরুদ্ধে গত ১৪ জানুয়ারি আদালতে অভিযোগপত্র দেয় পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। এক হাজার ৩০৯ পৃষ্ঠার অভিযোগপত্র রাষ্ট্রপক্ষে মোট ৫৭ জনকে সাক্ষী করা হয়। গত ৯ মার্চ অভিযোগপত্র আমলে নিয়ে একই আদালত অভিযোগ গঠন শুনানির জন্য ১৫ মার্চ দিন ধার্য করেন। তবে ১৫ মার্চ আসামিপক্ষ সময় আবেদন করায় ঢাকার মহানগর দায়রা জজ কেএম ইমরুল কায়েশ শুনানির নতুন দিন ১৬ এপ্রিল ধার্য করেন। কিন্তু করোনার কারণে নিয়মিত আদালত না বসায় এখনো শুনানি হয়নি।

১৯৮৯ সালের ২৫ জুলাই রাজধানীর সিদ্ধেশ্বরী এলাকায় গুলিতে নিহত হন সগিরা মোর্শেদ। এ ঘটনায় সগিরার স্বামী আব্দুস সালাম চৌধুরী রমনা থানায় মামলা করেন। পরে মিন্টু ওরফে মন্টু ওরফে মরণ নামের এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দেয় পুলিশ। বিচারও শুরু হয়। সাক্ষ্যে মারুফ রেজার নাম আসায় মামলার অধিকতর তদন্তের নির্দেশ দেয়া হয়।পরে মারুফ রেজার আবেদনের প্রেক্ষিতে উচ্চ আদালত অধিকতর তদন্তের আদেশ ও বিচারকাজ ছয় মাসের জন্য স্থগিত করেন।

দীর্ঘদিন পর মামলাটি পুনরুজ্জীবিত হয় এবং গত ১৬ জানুয়ারি ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে সগিরার ভাসুর ডা. হাসান (৭০) ও তার স্ত্রী সায়েদাতুল মাহমুদা ওরফে শাহিনসহ (৬৪) চারজনকে আসামি করে এক হাজার ৩০৯ পৃষ্ঠার অভিযোগত্র দাখিল করেন তদন্ত কর্মকর্তা পিবিআইয়ের পরিদর্শক রফিকুল ইসলাম। 

মন্তব্য করুন

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

© 2020 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh