মার্কিন অভিযানে আইএস প্রধান বাগদাদি নিহত

আইএস নেতা আবু বকর আল-বাগদাদি। ছবি: স্কাই নিউজ

আইএস নেতা আবু বকর আল-বাগদাদি। ছবি: স্কাই নিউজ

ইসলামিক স্টেটের (আইএস) নেতা আবু বকর আল-বাগদাদি সিরিয়ার উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে যুক্তরাষ্ট্রের সেনা অভিযানে নিহত হয়েছেন। 

মার্কিন এক শীর্ষ প্রতিরক্ষা কর্মকর্তা ও এক সূত্র জানিয়েছেন, গতকাল শনিবার এই অভিযান পরিচালিত হয়।

ওই কর্মকর্তা বলেছেন, অভিযানের সময় বাগদাদি আত্মঘাতী বোমার বিস্ফোরণ ঘটিয়েছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। 

আইএস নেতা বাগদাদির অবস্থান শনাক্তের কাজটি করেছে দেশটির কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএ। তারপর সেখানে অভিযান চালানো হয় বলেও জানান তিনি।

তবে ডিএনএ ও বায়োমেট্রিক পরীক্ষার পর বাগদাদির মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করা হবে বলে জানিয়েছে উভয় সূত্র।

মার্কিন সাপ্তাহিক ম্যাগাজিন নিউজউইক প্রথম খবর প্রকাশ করে যে, মার্কিন সেনা অভিযানে বাগদাদি নিহত হয়েছেন বলে ধারনা করা হচ্ছে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এক টুইট বার্তায় বলেছেন, ‘এইমাত্র বিশাল বড় কিছু একটা ঘটে গেছে।’ তিনি এ নিয়ে শিগগিরই ঘোষণা দিতে যাচ্ছেন।

ট্রাম্প আজ রবিবার যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় সময় সকাল ৯টায় গুরুত্বপূর্ণ এক ঘোষণা দেবেন বলে জানিয়েছেন হোয়াইট হাউসের সহকারী প্রেস সেক্রেটারি হোগান গিডলে। প্রশাসনিক এক কর্মকর্তা সিএনএনকে বলেছেন, ট্রাম্পের এ ঘোষণা হবে বৈদেশিক নীতি সম্পর্কিত।

মার্কিন প্রতিরক্ষা সদরদফতর পেন্টাগন এ বিষয়ে কোনো প্রতিক্রিয়া জানায়নি।

আইএস নেতা আবু বকর আল বাগদাদি গত পাঁচ বছর ধরে আত্মগোপনে রয়েছেন। বাগদাদিই বর্তমানে আইএসের প্রধান নেতা। গত এপ্রিলে আইএসের সংবাদমাধ্যমের শাখা আল ফুরকান একটি ভিডিও প্রকাশ করে। যাতে তাদের নেতা বাগদাদিকে দেখা যায়। ২০১৪ সালের পর, গত এপ্রিল মাসেই প্রথম ভিডিও বার্তায় বক্তব্য দিতে দেখা যায় বাগদাদিকে। তাকে শেষবার দেখা গিয়েছিল ইরাকের মসুলে অবস্থিত গ্রেট মসজিদে।

২০১৮ সালে ফেব্রুয়ারিতে বেশ কয়েকজন মার্কিন কর্মকর্তা বলেছিলেন, ২০১৭ সালের মে মাসে একটি বিমান হামলায় আইএস বাগদাদি আহত হয়েছিলন। আহত হওয়ার কারণে তারপর পাঁচ মাস তিনি আইএসের নিয়ন্ত্রণ অন্যের দায়িত্বে দিয়েছিলেন।

২০১০ সালে ইসলামিক স্টেট অব ইরাকের (আইএসআই) নেতা হন বাগদাদি। ২০১৩ সালে আইএসআই ঘোষণা করে তারা সিরিয়ায় আল কায়েদা সমর্থিত জঙ্গিগোষ্ঠীর সঙ্গে মিলে কাজ করছে। বাগদাদি বলেন, তাঁর দল এখন থেকে ইসলামিক স্টেট ইন ইরাক অ্যান্ড দ্যা সিরিয়া তথা আইএসআইএস অথবা আইএসআইএল হিসেবে পরিচিত হবে। -সিএনএন 


মন্তব্য করুন

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

© 2020 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh