অক্সফোর্ডের টিকা ৯৯ ভাগ কার্যকর দাবি

মহামারি করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে অক্সফোর্ড ও অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা ৯৯ শতাংশ কার্যকর বলে প্রকাশিত এক ফলাফলে গবেষকরা জানিয়েছেন। পরীক্ষায় টিকাটি শতকরা ৯৯ শতাংশ কার্যকর বলে প্রমাণিত হয়েছে। যা সব বয়সের মানুষের শরীরেই পরীক্ষা চালিয়ে প্রমাণ পাওয়া গেছে।

এতে দেখা যায়, অংশ নেয়া প্রতি ১০০ জনের মধ্যে ৯৯ জনের দেহেই টিকাটি করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে কার্যকর প্রতিরোধ ব্যবস্থা গড়ে তুলেছে। শুধু তাই নয়, ওই গবেষণায় নিশ্চিত হওয়া গেছে- বয়স্কদের দেহেও এই টিকা কার্যকর।

খবরে জানানো হয়েছে, আগামী বড়দিনের পূর্বে টিকা আসার সম্ভাবনা একেবারেই কম। টিকাটি ডেভেলপ করা বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, ডিসেম্বর মাসের পূর্বে তারা এই টিকার অনুমোদনের আবেদন জানানোর পর্যায়ে পৌঁছাতে পারবেন না। ফলে ২০২১ সালের আগে মানুষের কাছে পৌঁছানো যাবে, সেই সম্ভাবনা এখন ক্ষীণ হয়ে এসেছে।

অক্সফোর্ডের টিকা এখন পর্যন্ত সবথেকে আলোচিত হয়েছে। একে বলা হয়েছে, করোনাভাইরাসকে জয় করতে বৃটেনের জন্য সবথেকে বড় ‘আশা’। বৃটিশ সরকার এরইমধ্যে এই টিকার ১০ কোটি ডোজ অর্ডারও করেছে। তবে সেটি আর এ বছর মানুষ পাচ্ছে না।

অক্সফোর্ড টিকা গ্রুপের পরিচালক প্রফেসর অ্যান্ড্রু পোলার্ড বলেন, বড়দিনের পূর্বেই তাদের টিকার কার্যকারিতা পুরোপুরি প্রমাণিত হয়ে যাবে এমন আশা ছিলো তার। তবে এই টিকার অনুমোদন দেয়া এবং হাসপাতালগুলোতে এর সরবরাহ চালু করা অক্সফোর্ডের হাতে নেই। ফলে অ্যান্ড্রুর আশঙ্কা, এই ধাপগুলো পার হতে আরো কয়েক সপ্তাহ লেগে যাবে। ফলে আগামী বছর ছাড়া এই টিকা মানুষের কাছে পৌঁছচ্ছে না।

এর আগে বিজ্ঞানীরা টিকা সম্পর্কিত সর্বশেষ তথ্য প্রকাশ করেন। এতে ৫৬০ জনের ওপর চালানো পরীক্ষার ফলাফল পর্যালোচনা করেন বিজ্ঞানীরা। এতে দেখা যায়, সব বয়সের মানুষের মধ্যেই অক্সফোর্ডের টিকা শতকরা ৯৯ শতাংশ কার্যকর। করোনাভাইরাসে সবথেকে বেশি ঝুঁকিতে রয়েছে বৃদ্ধরা। অক্সফোর্ডের টিকা তাদের মধ্যে দারুণভাবে কাজ করছে। একইসঙ্গে, এটি প্রয়োগে উদ্বিগ্ন হওয়ার মতো কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াও পাওয়া যায়নি।

অক্সফোর্ডের টিকার প্রধান দুই প্রতিদ্বন্দ্বী মডার্না ও ফাইজারের কার্যকারিতা প্রমাণিত হয়েছে। এগুলো শতকরা ৯০ ও ৯৫ শতাংশ কার্যকর বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্টরা। কার্যকারিতার দিক থেকে তাই আপাতত অক্সফোর্ড এগিয়ে আছে বলে মনে করা হচ্ছে। যদিও অক্সফোর্ডের চূড়ান্ত ফলাফল জানতে আরো অপেক্ষা করতে হবে।-ডেইলি মেইল

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

© 2020 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh