জনসনের টিকাতেও এবার রক্ত জমাট বাঁধার ঘটনা

ছবি: আল জাজিরা

ছবি: আল জাজিরা

অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার করোনাভাইরাসের টিকার পর এবার যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক ওষুধ প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান জনসন অ্যান্ড জনসনের টিকাতেও রক্ত জমাট বাঁধার ঘটনা ঘটেছে। 

গতকাল শুক্রবার (৯ এপ্রিল শুক্রবার) ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) ওষুধ নিয়ন্ত্রক সংস্থা ইউরোপিয়ান মেডিসিনস এজেন্সি (ইএমএ) এতথ্য জানিয়েছে।

এক বার্তায় ইএমএ বলেছে, জনসন অ্যান্ড জনসনের টিকা নেয়ার পর এ পর্যন্ত চারজন রক্ত জমাট বাঁধা সমস্যায় ভুগছেন। মূলত তাদের মস্তিষ্ক ও তলপেটে রক্ত জমাট বাঁধার এসব ঘটনা ঘটে। এদের একজন ইউরোপের ও বাকি তিনজন যুক্তরাষ্ট্রের। এদের মধ্যে একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। 

কিছুদিন আগেই অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিনে রক্ত জমাট বাঁধার ঘটনা সামনে এসেছিল। ওই ঘটনার প্রতিক্রিয়া হিসেবে বিভিন্ন দেশে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকাদান কর্মসূচি স্থগিত করা হয়। 

এ ধরনের ঘটনা এটাই প্রথম নয়। ইউরোপে ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল চালানোর সময়ও একই রকমের ঘটনা ঘটেছে। সে সময় রক্ত জমাট বাঁধার ঘটনায় একজন স্বেচ্ছাসেবীর মৃত্যু হয়েছিল। তবে তখন প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছিল যে, তাদের টিকা নেয়ার সাথে এর কোনো সম্পর্ক নেই।

এক বিবৃতিতে জনসন অ্যান্ড জনসন জানিয়েছে, রক্ত জমাট বাঁধার বিরল এ ঘটনা নিয়ে বিশদ তথ্য পেতে নিয়ন্ত্রক সংস্থাগুলোর সাথে তারা কাজ করে যাচ্ছে। তবে এখনো পর্যন্ত টিকার সাথে এ ঘটনার কোনো সম্পর্ক পাওয়া যায়নি।

ইএমএর ওষুধ ও টিকা বিশ্লেষন বিভাগের প্রধান পিটার আরলেট মার্কিন সংবাদমাধ্যম ব্লুমবার্গকে বলেছেন, আমরা জে অ্যান্ড জেসহ অন্য টিকাগুলোর তথ্য পর্যবেক্ষণ ও পুনঃমূল্যায়ন করছি। এটি শেষ হওয়ার আগ পর্যন্ত এ ব্যাপারে কিছু বলা উচিত হবে না।

যুক্তরাষ্ট্রে এখন পর্যন্ত প্রায় ৫০ লাখ মানুষ জনসন অ্যান্ড জনসনের এক ডোজের এই কভিড ভ্যাকসিন নিয়েছেন। তার মধ্যে তিনজনের রক্ত জমাট বাঁধার ঘটনা ঘটেছে। গত ৭ এপ্রিল এ বিষয়টির দিকে আলোকপাত করেছেন ইএমএ-এর হেড অব অ্যানালিটিক্স পিটার আরলেট। তিনি বলেন, বিশ্বজুড়ে যে পরিমাণ মানুষ জনসন অ্যান্ড জনসনের টিকা নিয়েছেন তার তুলনায় খুব কম সংখ্যক মানুষের ক্ষেত্রে এ ঘটনা ঘটেছে। তারপরও এই বিষয়টি ইএমএ’র নিবিড় পর্যবেক্ষণে রয়েছে।

বিষয়টি নিয়ে কোনও মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের খাদ্য ও ওষুধ নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এফডিএ)।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh